শার্শায় স্কুলছাত্রীকে ‘সংঘবদ্ধ গণধর্ষণ’, গ্রেপ্তার ১

বুধবার, জুলাই ২৮, ২০২১

যশোর: সোমবার রাতে পাশের বাড়ি থেকে নিজবাড়িতে ফিরছিল কিশোরী। পথে সাগর হোসেন, সুমন ও পাশের কলারোয়া উপজেলার নাহিদ হাসান তার মুখ চেপে ধরে পাশে পুকুরপাড়ের জঙ্গলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করেন।

যশোরের শার্শায় ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে মামলায় হয়েছে। এ ঘটনায় সাগর হোসেন নামে এক তরুণকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
সোমবার রাতে ধর্ষণের ওই ঘটনা ঘটে। পরে সামাজিক বিচারের নামে গ্রামের প্রভাবশালীরা কিশোরী ও তার বাবাকে আটকে রাখলে মঙ্গলবার সকালে পুলিশ তাদের উদ্ধার করে।

উদ্ধারের পর কিশোরীর বাবা জানান, সোমবার রাতে তার মেয়ে পাশের বাড়ি থেকে নিজবাড়িতে ফিরছিল। পথে সাগর হোসেন, সুমন ও পাশের কলারোয়া উপজেলার নাহিদ হাসান তার মুখ চেপে ধরে পাশে পুকুরপাড়ের জঙ্গলে নিয়ে যায়।

সেখানে তাকে ধর্ষণের পর পুকুরে ডুবিয়ে হত্যার চেষ্টা করা হয়। ওই সময় মেয়ের চিৎকার শুনে তারা গিয়ে তাকে উদ্ধার করেন।
তিনি অভিযোগ করেন, ভ্যানচালক ও গরিব হওয়ায় ঘটনা প্রকাশ করলে তাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়া হয়।
পরে সামাজিক বিচারের নামে গ্রামের প্রভাবশালীরা তাকে আটকে রাখেন।

খবর পেয়ে মঙ্গলবার সকালে পুলিশ তাদের উদ্ধার করলে তিনি তিনজনকে আসামি করে মামলা করেন।

শার্শা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বদরুল আলম জানান, মেয়েটি ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গ্রেপ্তার সাগর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে, তারা তিনজন এ কাজ করেছে। বাকি দুই আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।