ইসরায়েল থেকে মার্কিন সেনাদের সরিয়ে নিল যুক্তরাষ্ট্র

শুক্রবার, মে ১৪, ২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ফিলিস্তিনি যোদ্ধাদের হামলা ও অভ্যন্তরীণ দাঙ্গায় অরাজক পরিস্থিতিতে পড়া ইসরায়েল থেকে শতাধিক সেনা ও কয়েকজন বেসামরিক নাগরিককে সরিয়ে নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ওই অঞ্চলে চলমান সহিংস পরিস্থিতির কারণে এ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে মার্কিন প্রশাসন।

বৃহস্পতিবার পেন্টাগন জানিয়েছে, ইসরায়েল থেকে ১২০ জন সেনাকে একটি সি-১৭ উড়োজাহাজে করে জার্মানির মার্কিন ঘাঁটিতে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। এসব সেনা যৌথ সামরিক মহড়ায় অংশ নিতে ইসরায়েলে গিয়েছিলেন।

মার্কিন সেনা সদরদফতরের মুখপাত্র জন কিরবি জানান, এসব সেনা ইতোমধ্যে জার্মানির রামস্টেইন ঘাঁটিতে পৌঁছেছেন। ইসরায়েলি মিত্রদের সঙ্গে পরামর্শের ভিত্তিতে সেনাদের সরিয়ে নেয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

এদিকে, ইসরায়েলে অনাবশ্যক সফর না করতে মার্কিন নাগরিকদের পরামর্শ দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতর। সেখানে চলমান যুদ্ধপরিস্থিতির কারণে এই আহ্বান জানানো হচ্ছে বলে জানিয়েছে মার্কিন প্রশাসন।

অবশ্য এর একদিন আগেই ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর কাছে ফোন করে পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। চলমান সংঘাতে সরাসরি ইসরায়েলে পক্ষ নিয়ে তিনি বলেছেন, হাজার হাজার রকেট ছোড়া হলে তা থেকে আত্মরক্ষার অধিকার রয়েছে ইসরায়েলের।

বুধবার হোয়াইট হাউস প্রকাশিত বিবৃবিতে জানানো হয়, নেতানিয়াহুর সঙ্গে ফোনালাপে জো বাইডেন ‘স্থায়ী শান্তি পুনরুদ্ধারে’ উৎসাহ দিয়েছেন। পাশাপাশি, ইসরায়েলের নিরাপত্তা এবং তার জনগণকে রক্ষার ‘বৈধ অধিকারের’ প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের অটল সমর্থনের কথা জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

গাজার স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের বরাতে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা জানিয়েছে, ইসরায়েলি দখলদারদের হামলায় এ পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১১৩ জন। এর মধ্যে ৩১টি কোমলমতি শিশুও রয়েছে। এছাড়া ইসরায়েলি হামলায় আহত হয়েছেন ছয়শ’রও বেশি ফিলিস্তিনি।

বর্বর এই হামলার জবাবে ইসরায়েলের দিকে পাল্টা রকেট হামলা চালাচ্ছে ফিলিস্তিনের ইসলামী প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস ও অন্য সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলো। তারা ইসরায়েলকে লক্ষ্য করে দেড় হাজারেরও বেশি রকেট নিক্ষেপ করেছে বলে জানিয়েছে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী। এতে অন্তত ছয় ইসরায়েলি নিহত এবং কয়েক ডজন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

সূত্র: পার্স টুডে, আল জাজিরা