রক্তাক্ত ফিলিস্তিন, যুক্তরাষ্ট্রের আপত্তিতেও বৈঠকে বসছে নিরাপত্তা পরিষদ

বৃহস্পতিবার, মে ১৩, ২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের চলমান সংঘাত মেটাতে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের হস্তক্ষেপে যুক্তরাষ্ট্রের আপত্তির মধ্যেই আগামী শুক্রবার তৃতীয় দফা জরুরি বৈঠকের ডাক দিয়েছে তিউনিসিয়া, নরওয়ে ও চীন।

সংবাদ সংস্থা এএফপির বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এ তথ্য জানিয়েছে।

তিউনিসিয়া, নরওয়ে ও চীনের কূটনীতিকেরা বলছেন, বৈঠকটিতে সবার অংশগ্রহণের সুযোগ রাখা যেতে পারে। চাইলে ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের প্রতিনিধিরাও বৈঠকে অংশ নিতে পারে।

ইসরায়েলের মিত্র দেশ যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে এরইমধ্যে দুই দফা রুদ্ধদ্বার ভিডিও কনফারেন্স বৈঠক করেছে নিরাপত্তা পরিষদ। বৈঠকে যুক্তরাষ্ট্রকে সঙ্গে নিয়ে সংঘাত বন্ধের আবেদন জানিয়ে একটি যৌথ ঘোষণার আহ্বান জানানো হলে যুক্তরাষ্ট্র তা নাকচ করে দেয়।

যুক্তরাষ্ট্রের অভিমত, এমন যৌথ ঘোষণা সংঘাত বন্ধে খুব একটা সহযোগিতা করবে না।

এনডিটিভি জানিয়েছে, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন কূটনীতিক এএফপিকে বলেছেন, সপ্তাহখানেক ধরে ফিলিস্তিনিদের চাপে তৃতীয় দফায় এ বৈঠকের আহ্বান জানানো হচ্ছে।

জানা গেছে, ইসরায়েল-হামাস যুদ্ধ বন্ধের লক্ষ্যে গত বুধবারের বৈঠকে যৌথ ঘোষণার ব্যাপারে নিরাপত্তা পরিষদের ১৫ সদস্যের মধ্যে ১৪ সদস্য এর পক্ষে সমর্থন দেয়। একমাত্র দেশ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র সেই আহ্বান নাকচ করে।

এদিকে সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো যখন মুসলিম বিশ্বের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর উদযাপন করছে, একই সময়ে ইহুদি রাষ্ট্র ইসরায়েলেই বিমান হামলায় রক্তাক্ত এক দিন পার করছে ফিলিস্তিনের জনগণ।

মধ্যপ্রাচ্যের অন্যান্য দেশগুলোর মতো বৃহস্পতিবার (১৩ মে) সকালে ফিলিস্তিনি মুসলিমরাও ঈদের নামাজ আদায়ের প্রস্তুতি নিচ্ছিল। কিন্তু ঈদের দিনও অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় বোমা বর্ষণ অব্যাহত রাখে ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী।

বুধবার গভীর রাত থেকে বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত দফায় দফায় গাজার বিভিন্ন স্থাপনায় বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। টানা কয়েকদিনের হামলায় ভূখণ্ডটিতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৬৯ জনে দাঁড়িয়েছে। যার মধ্যে অন্তত ১৭ জন শিশু রয়েছে। আহত হয়েছেন ৩৯০ জনেরও বেশি। গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে এসব তথ্য জানিয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো।