বাঙ্গি নিয়ে আর ট্রোল নয়!

বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২২, ২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বাঙ্গি নিয়ে সাম্প্রতিক সময়ে ট্রোলের শেষ নেই। কিন্তু যতই ট্রোল হোক না কেন তাতে কিন্তু বাঙ্গির পুষ্টিগুণ কোন অংশে কমে যায় না। আসুন জেনে নিই বাঙ্গির পুষ্টিগুণ ও উপকারিতা সম্পর্কে চিকিৎসকরা কি বলেন।

গ্রীষ্মকালীন ফল বাঙ্গি। পাকা বাঙ্গির সালাদ, শরবত থেকে শুরু করে কাচা বাঙ্গির সবজিও রান্না করে খাওয়া যায়। করোনা মহামারির এই সময়ে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে বাঙ্গির মত পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ খাবার বেশি বেশি খেতে খবে বলে জানান চিকিৎসকরা।

বাঙ্গিতে রয়েছে প্রচুর ক্যালসিয়াম, ভিটামিন-এ, ভিটামিন-বি, ম্যাগনেসিয়াম। বাঙ্গির মাধ্যমে এসব পুষ্টিগুণ সহজেই একসাথে গ্রহণ করা সম্ভব। বাঙ্গিতে উপস্থিত ভিটামিন বি মাথার চুল পড়া কমায় ও নতুন চুল গজাতে সহায়তা করে।

বাঙ্গিতে উপস্থিত ফলিক এসিড রক্ত শূন্যতা দূর করে ও রক্ত তৈরিতে সহায়তা করে। গরমকালে পানিশূন্যতা, উচ্চরক্তচাপ, হিটস্ট্রোকজনিত সমস্যা বেড়ে যায়। এছাড়া বর্তমান বিশ্বের করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় সকলেরব শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা। এসব রোগ প্রতিরোধে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে বাঙ্গির সঙ্গে তুলনীয় ফলের সংখ্যা খুবই কম। ভিটামিন-সি, ডি ও মিনারেলের উপস্থিতির কারণে বাঙ্গি এই সমস্যাগুলো সমাধানে পটু।

বাঙ্গির গুণগত দিক বিবেচনা করে প্রসূতি মায়েদেরকে বেশি বেশি বাঙ্গি খাওয়ার পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা। ডায়ারেটিস রোগীদের জন্যও উত্তম খাবার বাঙ্গি। কেননা বাঙ্গিতে মিষ্টতা কম থাকে। এছাড়াও বাঙ্গি হজমশক্তি বৃদ্ধি করে, ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে সহায়তা করে।

বাঙ্গির মত পুষ্টিগুণ বিদেশি অনেক দামী ফলেও পাওয়া যায় না। সুতরাং সহলভ্য দেশী এই ফলটি পুষ্টিগুণ বিবেচনায় সকলের খাবার তালিকায় রাখা উচিত।