তৃণমূলের দাবি এক দিনে ভোট, দফায় দফায় চায় বিজেপি

মঙ্গলবার, এপ্রিল ২০, ২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের চলতি বিধানসভা নির্বাচনের আর তিন দফা ভোট বাকি। এরই মধ্যে সারা দেশের সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের করোনা পরিস্থিতি সংকটজনক হয়ে উঠেছে।

হেমতাবাদের তৃণমূলের ভোট প্রচারের সভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, কমিশনকে হাতজোড় করে অনুরোধ করব, এক দিনে নির্বাচন করে দিন। মানুষের জীবন নিয়ে খেলবেন না। বিজেপির কথায় চলবেন না।

বিজেপি নেতা রবিশঙ্কর প্রসাদ বলেন, নির্বাচন কয় দফায় হবে, সিদ্ধান্ত নেবে কমিশন। নির্বাচন, সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা। সাংবিধানিক কর্তৃপক্ষ হিসেবে কমিশনই শেষ কথা।

এদিন কেতুগ্রামের সভা থেকে তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপিকে নিশানা করে বলেন, রাজ্যের করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে তৃণমূল নেত্রী এক দফায় বাকি ভোট সম্পন্ন করার আরজি জানিয়েছিলেন। কিন্তু সেই আরজিতে কর্ণপাত করা হয়নি। ভোটের দফা কমলে, রাজ্যে বিজেপি নেতাদের ডেইলি প্যাসেঞ্জারি বন্ধ হয়ে যাবে। ভুয়া খবর প্রচার বন্ধ হয়ে যাবে।

অভিষেকের আরও অভিযোগ, দেশের উদ্বেগজনক করোনা পরিস্থিতিতে হেলদোল নেই প্রধানমন্ত্রীর। ৮ হাজার টাকার বিমানে চড়ে, বাংলার ক্ষমতা দখলের ভোট প্রচারে গুরুত্ব বেশি দিচ্ছেন।

এদিন বর্ধমানের পাণ্ডবেশ্বরে ভোট প্রচারে গিয়ে, কয়লা-কাণ্ডের প্রসঙ্গ তুলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ মমতা-অভিষেককে আক্রমণ করেন।

পাণ্ডবেশ্বর বিধানসভা কেন্দ্রের মাদারবনীর এক সভায় অমিত শাহ বলেন, এই বর্ধমান কয়লা চুরির জন্য প্রসিদ্ধ। সিবিআই কয়লা-কাণ্ডে এক মিশ্রকে ধরেছে। সঙ্গে সঙ্গে মাঠে নেমে পড়েছে দিদি-ভাইপো। দিদি বলছেন, বিনয় মিশ্রর সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক নেই। ভাইপো বলছে, মিশ্র আমাদের সঙ্গে প্রতারণা করেছে।

বিনয় মিশ্র কয়লা কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত।

কেতুগ্রামের সভায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, শীতলকুচিতে কার ইন্ধনে গুলি চলেছে, তদন্ত হবে। দোষীরা কেউ ছাড় পাবে না।

প্রচার চলাকালীন রোববার বিজেপি নেতা মিঠুন চক্রবর্তী অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাকে তড়িঘড়ি কলকাতায় ফিরিয়ে আনা হয়। পরে তিনি নিজেই তার প্রচারসূচি বাতিল না করার কথা বলেন। মিঠুনের কথামতো তার প্রচারসূচি বাতিল করা হয়নি। মঙ্গলবার কৃষ্ণনগরের গাইঘাটায় তিনি রোড শো করেন।

নৈহাটিতে রোড শো করেন বিজেপি নেত্রী স্মৃতি ইরানি।

এদিকে পঞ্চম দফার ভোট-পরবর্তী সহিংসতায় ফের উত্তপ্ত দত্তদের লাবনী মোড়। বিজেপি পার্টি অফিসের সামনে বাইকে করে এসে শূন্যে গুলি চালানোর অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। তৃণমূল অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

সোদপুরের স্বদেশ মোড়ে বিজেপি-তৃণমূলের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ, বোমাবাজি চলে। বিজেপি কর্মীদের লক্ষ্য করে বোমাবাজির অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। তৃণমূল তাদের অফিস ভাঙচুর ও বোমাবাজি করেছে বলে পাল্টা অভিযোগ তুলেছে বিজেপির বিরুদ্ধে।

উভয় পক্ষ অভিযোগ অস্বীকার করেছে। ঘটনাস্থলে কেন্দ্রীয় বাহিনী পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

বিজেপি প্রার্থী সন্ময় বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়ি লক্ষ্য করে বোমা মারা হয় বলে তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছে বিজেপি। সন্ময় বন্দ্যোপাধ্যায় ওই রাতেই খড়দহ থানার সামনে ধরনায় বসেন।

এদিকে বিজেপির যুবনেতা জয় সাহার বাড়ির সামনেও বোমাবাজির অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। যদিও তৃণমূল কংগ্রেস এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

মালদার সাহাপুরের বিজেপি প্রার্থী গোপাল সাহাকে লক্ষ্য করে দুষ্কৃতকারীরা গুলি চালালে তার গলায় গুলি লাগে, প্রার্থীকে মালদা জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চার ঘণ্টার অস্ত্রোপচারে গুলি বের করা হয়। তার অবস্থা এখন স্থিতিশীল।

ঘটনাস্থলে যান মালদার পুলিশ সুপার অলক বাজোরিয়া। ঘটনার প্রতিবাদে বিজেপি ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করে।

কালনায় বিজেপি কর্মী অখিল প্রামাণিককে খুন করে গাছে ঝুলিয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। বিজেপির বিশ্বজিৎ কুণ্ডু বলেন, পরিকল্পনা করে খুন করেছে তৃণমূল।

তৃণমূলের স্বপন দেবনাথ বলেন, বাজার গরম করতে মিথ্যা কথা বলছে বিজেপি।

সহিংস সংঘর্ষের মধ্যে ষষ্ঠ দফার ভোটের আগে একাধিক পুলিশ অফিসারকে বদল করেছে নির্বাচন কমিশন। করোনা সংক্রমণ আর ভোট-সন্ত্রাসের মধ্যে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট পরিচালনা করা কমিশনের কাছে এখন অগ্নিপরীক্ষা।

এরই মধ্যে কেন্দ্র সরকার ঘোষণা করেছে, এবার খোলাবাজারে সরকার নির্ধারিত দামে প্রস্তুতকারী সংস্থা টিকা বিক্রি করতে পারবে। ১ মে থেকে ১৮ বছর হলেই টিকা দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র সরকার।