রোহিঙ্গা যুবকের পেট থেকে বের করা হলো ৩৯টি ইয়াবা

শনিবার, এপ্রিল ১৭, ২০২১

ঢাকা : রোহিঙ্গা যুবক মো.জাকির হোসেন। বয়স-২২। গতকাল শুক্রবার বিকেলে প্রচন্ড পেট ব্যাথা নিয়ে ভর্তি হয় মালুমঘাট মেমোরিয়াল খ্রিষ্টান হাসপাতালের ১৪০৭ নাম্বার রুমে। রোগির প্রচন্ড রকমের পেট ব্যাথা লক্ষণ দেখা দেয়ায় তার অপারেশনের ব্যবস্থা করেন চিকিৎসক দল।

এসময় চিকিৎসক দল ওইদিন রাতে অপারেশনের (পেট কাটা হয়) পর তার পেট থেকে কালো কসটেপ মোড়ানো ৩৯টি ছোট ছোট প্যাকেট বের করে আনে। বিষয়টি সন্দেহজনক হওয়া খবর দেয় চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়েরকে।

পরে চকরিয়া থানার এসআই মো.কামরুজ্জামানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ হাসপাতালে যায়।এসময় প্যাকেটগুলো থেকে এক এক করে ১৯’শ ৫০ পিস ইয়াবা বড়ি বের করা হয়। যার আনুমানিক মূল্য ৫ লাখ ৮৫ হাজার টাকা।

গতকাল (১৬ এপ্রিল) শুক্রবার বিকেলে চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলায়। এই ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যর সৃষ্টি হয়েছে। পেট কেটে ইয়াবা উদ্ধার করা যুবক কক্সবাজারের উখিয়াস্থ রোহিঙ্গা ক্যাম্প -০২ এর ব্লক-০১ এর মো.ইলিয়াসের ছেলে।

চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাকের মো.যুবায়ের বলেন, জাকির হোসেন নামের এক রোহিঙ্গা যুবকের পেট অপারেশন করে কালো কসটেপ মোড়ানো বেশ কিছু প্যাকেট বের করা হয়েছে বলে খবর দেয় মালুমঘাট মেমোরিয়াল খ্রিষ্টান হাসপাতালের আবাসিক সার্জন ডা.স্টিফেন কেলী। পরে থানার এসআই মো.কামরুজ্জামানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়। এসময় পেট কেটে বের করা ৩৯টি প্যাকেটের ভিতর থেকে প্রতি প্যাকেটে ৫০ পিস করে মোট ১৯’শ ৫০ পিস ইয়াবা বড়ি উদ্ধার করা হয়। যার আনুমানিক মূল্য ৫ লাখ ৮৫ হাজার টাকা।

তিনি আরো বলেন, এ ঘটনায় মাদক আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। মাদক ব্যবসায়ী রোহিঙ্গা যুবক জাকির হোসেনকে পুলিশি পাহারায় চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।