নৌকার বাইরে ভোট দিলে ইভিএমে ধরি ফেলা যায় : বললেন লক্ষ্মীপুরের আ.লীগ নেতা

শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০২১

ঢাকা:নৌকার বাইরে ভোট দিলে ইভিএমে ধরি ফেলা যায়, এমনই এক কথা বলে ব্যাপক আলোচনায় লক্ষ্মীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নুর উদ্দিন চৌধুরী ওরফে নয়ন।৩ নম্বর ওয়ার্ডের চর সেকান্দর সফি একাডেমি মাঠে অনুষ্ঠিত ওই সভায় ২৩ মিনিটের বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

নোয়াখালী অঞ্চলের আঞ্চলিক ভাষায় তিনি বলেন, ‘ইভিএম এমন এক সিস্টেম, নৌকার বাহিরে কেউ ভোট দিলে ধরি হালান যায়। চিটাগাং (চট্টগ্রাম) এক কেন্দ্রে ইভিএমে নৌকা পেয়েছে ২ হাজার ৩০০ ভোট। এক ভোট পান ধানের শীষ। পরের দিন এ ভোট কে দিছে, ওই ওয়ার্ডের নেতারা তারে ধরি হালান। কত নম্বর ভোট নৌকার বাহিরে গেছে, তা ধরি হালা যায়।’

নুর উদ্দিন বলেন, ‘এডা তারের মতো সোজা যে, দলের সিদ্ধান্ত, মেয়র পদে ভোট হবে উন্নয়নের জন্য। আর কাউন্সিলর পদে ভোট হবে নিরপেক্ষ’।

নুর উদ্দিন চোধুরী আরও বলেন, ‘ইভিএম একটি মেশিন। একুলে কে কোথায় টিপ দেয়, বুঝা যায়। সুতরাং উল্টাপাল্টা টিপ দিয়ে রাজাকার ও খন্দকার মোশতাক হবেন না। যাঁরা এদিন উল্টাপাল্টা টিপ দিবেন, পরের দিন মেশিন চেক করলে সিসি ক্যামেরার মতো বের করা যাবে।’গত বুধবার বিকেলে লক্ষ্মীপুরের রামগতি পৌরসভা নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থীর কর্মিসভায় নুর উদ্দিন এসব কথা বলেন।

তিনি বুধবার সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডের পথসভায় বক্তব্য দেন। এ সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন নৌকা প্রতীকের প্রার্থী এম মেজবাহ উদ্দিন, লক্ষ্মীপুর-৪ (রামগতি) আসনের সাবেক সাংসদ আবদুল্লাহ আল মামুন, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি এম আলাউদ্দিনসহ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ।