নৌকায় ভোট না দিলে কেন্দ্রে যেতে নিষেধ করলেন আওয়ামী লীগ নেতা

সোমবার, জানুয়ারি ২৫, ২০২১

বরগুনা : বরগুনার পাথরঘাটা পৌরসভার ৩০ জানুয়ারির নির্বাচনে মেয়র পদে নৌকা প্রতীকে ভোট না দিলে ভোটারদের কেন্দ্রে যেতে নিষেধ করেছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাবির হোসেন।

শনিবার পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের পথসভায় এ কথা বলেন তিনি। তার এমন বক্তব্য দেয়ার ভিডিও এখন ফেসবুকে ভাইরাল। এতে সাধারণ ভোটাররা আতঙ্কে রয়েছেন বলে জানা গেছে।

ভিডিওতে দেখা যায়, আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী আনোয়ার হোসেন আকনের নির্বাচনী পথসভায় আঞ্চলিক ও শুদ্ধ ভাষায় বক্তব্য রাখছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাবির হোসেন।

তখন তিনি ভোটারদের উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘যার কান্দেই ভর দিয়ে কেন্দ্রে আসেন মনে রাখবেন কেন্দ্রে গিয়ে নৌকায় ভোট দিতে হবে। নৌকায় ভোট না দিলে ভোটকেন্দ্রে যাওয়ার দরকার নেই। আমি বলছি কেন্দ্রের কাছেও যাবেন না। মনে করতে পারেন মোরা তো নৌকাই আছি কেন্দ্রে গিয়ে অন্যতায় ভোট দিবেন। সে চিন্তা বাদ। নৌকায় ভোট নিশ্চিত করতে হবে। কমিশনারের ভোট যাতে দেন কোনো সমস্যা নেই। ৫নং ওয়ার্ড টেন মার্কা।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের কান ঝালাফালা হয়ে গেছে। যার কারণে কাউকে বিশ্বাস করতে পারি না। বিশ্বাস মরে গেছে। বাপে পোলারে বিশ্বাস করে না। তাই কাউকে বিশ্বাস করি না। যার কারণে নৌকার ভোট নিশ্চিত করতে হবে।’

তার এই বক্তব্যে বিএনপি ও স্বতন্ত্র মেয়র পদপ্রার্থীরা সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন। ভিডিওর একটি সিডিসহ রিটার্নিং অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ করার কথা রয়েছে ওই চার প্রার্থীর।

নাম প্রকাশ না করে কয়েকজন ভোটার গণমাধ্যমকে বলেন, এভাবে যদি বক্তব্য দেয়া হয় তাহলে কতটুকু সুষ্ঠু নির্বাচন হবে। আমরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ভোট দিতে যেতে পারব না। সুষ্ঠুভাবে ভোট দিতে পারলে কেন্দ্রে যাব।

স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান সোহেল বলেন, আমার কর্মীদের নৌকার কর্মীরা নানাভাবে হুমকি দিচ্ছেন, প্রচারণায় বাধাও দেয়া হচ্ছে না। ঘরে বসে থাকতে হয়। এভাবে চলতে থাকলে এজেন্ট দেয়া যাবে না। এর এইসব কারণে সাধারণ ভোটাররাও শঙ্কিত। সব সময় তারা মাইকিং করে বলেন নৌকায় ভোট না দিলে কেন্দ্রে যাবেন না।

পাথরঘাটা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাবির হোসেন বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, ওটা ছিল নিজেদের উঠান বৈঠক। তাই কথাগুলো বলছি। ওটাতো জনসভা না। নিজেদের উঠান বৈঠক। উঠান বৈঠকে নিজেদের লোকদের বলছি। এটাতে কোনো প্রবলেম নেই। সাধারণ ভোটাররা যে যেখানে খুশি ভোট দেবে, এটাতে আমাদের কোনো আপত্তি নেই।

এ বিষয়ে রিটার্নিং অফিসার সাবরিনা সুলতানা বলেন, এ বিষয়ে কোনো অভিযোগ পাইনি। যদি আপনাদের কাছে কোনো প্রমাণ থাকে দিন। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।