বড়দিনের চমকপ্রদ ২৮ তথ্য

শুক্রবার, ডিসেম্বর ২৫, ২০২০

ঢাকা : আজ উদযাপিত হচ্ছে খ্রীষ্টান ধর্মাবলন্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব বড়দিন। বড়দিনকে আরো বেশি উপভোগ্য করে তুলতে এই উৎসবটি সম্পর্কে ২৮টি তথ্য জেনে রাখুন।

* যিশুর জন্ম: খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের প্রধান ধর্মীয় উৎসব বড়দিন। ২৫ ডিসেম্বর যিশু খ্রিস্টের জন্মের দিনে এই উৎসবটি পালিত হয়। কিন্তু অনেক ধর্মতাত্ত্বিক ধারণা করেন, যিশুর জন্ম ২৫ ডিসেম্বর নয়। তাদের মতে, খিষ্টপূর্ব ৬ অব্দ থেকে ৩০ খ্রিষ্টাব্দের মধ্যে সেপ্টেম্বরের যেকোনো সময়ে তিনি জন্মগ্রহণ করেন।

* দেশ ভেদে বড়দিন: অধিকাংশ দেশে ২৫ ডিসেম্বরকে বড়দিন হিসেবে পালন করা হলেও তা সব জায়গায় এক নয়। যেমন রাশিয়া, জর্জিয়া, মিশর, আর্মেনিয়া, ইউক্রেন এবং সার্বিয়ার মতো বেশ কয়েকটি দেশ ইস্টার্ন ন্যাশনাল চার্চ অনুযায়ী ৭ জানুয়ারি বড়দিন পালন করে। কারণ তারা ঐতিহ্যশালী জুলিয়ান ক্যালেন্ডার অনুসরণ করেন।

* ৩ জন জ্ঞানী ব্যক্তি: যদিও শিশু যিশুকে ৩ জ্ঞানী ব্যক্তির সম্মান জানানোর কথা প্রচলিত আছে, কিন্তু বাইবেলে এমন কোনো সংখ্যার উল্লেখ নেই।

* শিশু যিশু: বাইবেল বিশারদরা বলেন, যিশুর জন্ম হয়েছিল সম্ভবত একটি গুহার ভেতর, কোনো ঘরের মধ্যে নয়।

* মোজার মধ্যে কমলালেবু: মোজার মধ্যে কমলালেবু রাখার প্রথাটি এসেছে ১২ শতকের ফরাসি সন্ন্যাসীদের থেকে, যারা মোজাভর্তি ফলমূল, বাদাম এবং ছোট কমলালেবু গরীবদের বাড়িতে দিয়ে যেত।

* বাসেলিং: ক্যারল মূলত শুরু হয় বাসেলিং নামক একটি প্রাচীন ইংরেজি প্রথা থেকে, যেখানে প্রতিবেশীদের দীর্ঘায়ু কামনায় মদ্যপান করা হতো।

* মোজা: মোজা ঝুলিয়ে রাখার পদ্ধতিটি এসেছে একটি ডাচ্ প্রথা থেকে। প্রথানুযায়ী সেন্ট নিকোলাসের গাধার জন্য জুতা এবং খাবার রেখে দেওয়া হতো। সে এর বিনিময়ে কিছু উপহার রেখে যাবে এই আশায় এটি করা হতো।