৪-৫ জন মিলে কিশোরীকে ধর্ষণ, দুলাভাই-শ্যালিকা গ্রেপ্তার

সোমবার, নভেম্বর ৩০, ২০২০

গাইবান্ধা : গাইবান্ধায় কিশোরীকে গণধর্ষণের মামলায় দুলাভাই-শ্যালিকাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার (১৪ নভেম্বর) গণধর্ষণের শিকার কিশোরী গোবিন্দগঞ্জ থানায় অভিযোগ করলে রাতেই অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গোবিন্দগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আফজাল হোসেন জানান, ভুক্তভোগী কিশোরী নারায়ণগঞ্জে ভাড়া বাসায় থাকতেন। সেখানে উল্লেখিত অভিযুক্তরাও থাকতেন। সেই সুবাধে কিশোরীর সঙ্গে গোবিন্দগঞ্জের কিশোরী আদুরীর পরিচয় হয়। তাদের মধ্যে বন্ধুত্বের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

গত ২৭ অক্টোবর আদুরীর সঙ্গে তাদের গোবিন্দগঞ্জের বাড়িতে বেড়াতে আসেন নির্যাতিতা কিশোরী। শুক্রবার আদুরী তার দুলাভাই সোহেল মিয়ার সঙ্গে ওই কিশোরীকে ঢাকায় পাঠান। শুক্রবার সকালে ওই কিশোরীকে নিয়ে মোটরসাইকেলে রওনা হন সোহেল।

রাতে অপরিচিত স্থানে নিয়ে গিয়ে অজ্ঞাত আরও ৪ থেকে ৫ জন মিলে ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করেন সোহেল। পরে গভীর রাতে তাকে বালুয়াবাজারে বাংলালিংক টাওয়ারের সামনে ফেলে রেখে চলে যান। খবর পেয়ে ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ঘটনায় শনিবার দুপুরে নির্যাতনের শিকার কিশোরী বাদী হয়ে অভিযুক্ত সোহেলসহ অজ্ঞাত ৫ থেকে ৬ জনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন।

এরপর অভিযান চালিয়ে আদুরী ও অভিযুক্ত সোহেলকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বাকিদের গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে বলে জানায় পুলিশ। শনিবার বিকেলে গাইবান্ধা সদর হাসপাতালে নির্যাতিত কিশোরীর ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে।