ছড়াচ্ছে নির্বাচনী উত্তাপ, রাখাইনে সু চি’র ৩ নেতাকে অপহরণ

মঙ্গলবার, অক্টোবর ২০, ২০২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আসছে ৮ নভেম্বর মিয়ানমারে সাধারণ নির্বাচন। সেই নির্বাচনকে ঘিরে এখন দেশটির রাজনীতির মাঠ অনেকটাই সরগরম। প্রার্থীরা নিজ নিজ অবস্থান থেকে গণসংযোগ চালাচ্ছেন। সমানতালে চলছে রাজনৈতিক কূটনীতিও।

এরইমধ্যে দেশটির ক্ষমতাসীন ন্যাশনাল ডেমোক্র্যাটিক লিগের (এনএলডি) ৩ প্রার্থীকে রাখাইন থেকে অপহরণ করা হয়েছে।

মিয়ানমারের ক্ষমতাসীন দল এনএলডি’র নেত্রী অং সান সু’চির দলের অপহৃত এই তিন প্রার্থী হলেন- মিন অং, নি নি মে মিয়ান্ট ও চিট চিট চাউ।

জানা যায়, ৮ নভেম্বরের নির্বাচনকে সামনে রেখে এই তিন নেতা রাখাইনে নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে গিয়েছিলেন। সেখানেই তাদের অপরহণ করে রাখাইনের সশস্ত্র বিদ্রোহী গোষ্ঠী আরাকান আমি (এএ)।

এএ বলছে, অপহৃত ৩ নেতাকে ছেড়ে দেয়া হবে, যদি ছাত্র বিক্ষোভের সময় আটককৃতদের মুক্তি দেয় সরকার।

এর আগে গতকাল সোমবার ক্ষমতাসীন দলের এই তিন নেতাকে অপহরণের দায় স্বীকার করে আরাকান আর্মি।

সশস্ত্র বিদ্রোহী এ গোষ্ঠীটি এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ক্ষমতাসীন দল এনএলডি’র প্রার্থী মিন অং, নি নি মে মিয়ান্ট ও চিট চিট চাউকে অপহরণ করা হয়েছে। আমরা তাদের মুক্তি দিতে প্রস্তুত। তবে বিনিময়ে সাম্প্রতিক বিক্ষোভের সময় পুলিশের হাতে আটক শিক্ষার্থী ও নিরীহ মানুষদের মুক্তি দিতে হবে।

আরাকান আর্মির এ দাবি কিংবা শর্ত মানা ‘কঠিন’ জানিয়ে এনএলডির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য মিয়ো নুয়ান্ট বলেছেন, ‘তারা যদি এভাবে দাবি তুলে কিংবা শর্ত দিতে থাকে তাহলে তা মেনে নেয়া আমাদের জন্য সত্যিই কঠিন।’

দীর্ঘদিন ধরেই নৃতাত্ত্বিক রাখাইন জনগোষ্ঠীর অধিকারের দাবিতে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে সশস্ত্র লড়াই চালিয়ে আসছে আরাকান আর্মি। গেল বছর থেকে অঞ্চলটিতে এ লড়াই আরও তীব্র হয়েছে। সরকারের সেনাবাহিনী রাখাইনে বেসামরিক লোকদের ওপর সহিংসতা অব্যাহত রেখেছে বলে অভিযোগ করে আসছে এএ।