সাভারে অপহরণের ৫দিন পর আড়াই বছরের শিশু উদ্ধার

শনিবার, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২০

জাহিন সিংহ, সাভার থেকে : সাভারে অপহরণের পাঁচ দিন পর আমেনা আক্তার নামে আড়াই বছরের এক শিশুকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এঘটনায় অপহরণকারী এক দম্পতিকে আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেন সাভার মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সাইফুল ইসলাম।

এরআগে শুক্রবার বিকেলে রংপুর কোতয়ালী থানা এলাকা থেকে শিশুটিকে উদ্ধারের পর রাতে প্রযুক্তির সহায়তায় বগুড়ার শিবগঞ্জ এলাকা থেকে অপহরণকারী দম্পতিকে আটক করা হয়।

পুলিশ জানায়, সাভারের পশ্চিম ব্যাংক টাউন এলাকায় মোহাম্মদ আলীর বাড়ির একটি কক্ষে স্ত্রী-সন্তান নিয়ে ভাড়া থাকেন পোশাককর্মী আসাদুল হক। গত ১৪ সেপ্টেম্বর আসাদুলের শিশু সন্তান আমেনাকে চকলেট কিনে দেওয়ার কথা বলে অপহরণ করে নিয়ে যায় প্রতিবেশী শামছুন নাহার ও তার স্বামী আশরাফুল ইসলাম।

পরে অজ্ঞাত স্থান থেকে পরিবারের কাছে এক লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেন তারা। মুক্তিপণের টাকা দিতে দেরি হলে শিশুটিকে হত্যা করে গুম করে ফেলার হুমকি দেওয়া হয়। পরে বিকাশের মাধ্যমে অপহরণকারীদের কাছে পাঁচ হাজার টাকা পাঠানো হলে মেবাইলের মাধ্যমে শিশুটির কান্নার আওয়াজ পাঠানো হয় পরিবারের কাছে।

এঘটনায় অপহৃত শিশুটির পরিবার সাভার মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করলে শিশুটিকে উদ্ধারে পুলিশ মাঠে নামে। শুক্রবার বিকেলে অপহরণকারীরা শিশুটিকে রংপুরের কোতোয়ালী থানা এলাকায় একটি রাস্তার পাশে ফেলে গেছে সেখান থেকে উদ্ধার করে পুলিশ।

বার বার অপহরণকারীদের স্থান পরিবর্তনের ফলে শিশুটিকে জীবিত উদ্ধারে গত পাঁচ দিন ধরে রংপুরে অবস্থান করছিল সাভার মডেল থানা পুলিশের একটি দল। রাতে প্রযুক্তির সহায়তায় বগুড়ার শিবগঞ্জ এলাকার একটি বাড়ি থেকে আটক করা হয় অপহরণকারী দম্পতি শামছুন নাহার ও স্বামী আশরাফুল ইসলামকে।

পরে শনিবার ভোরে উদ্ধাকৃত শিশু আমেনাকে তার পরিবারের হাতে তুলে দেয় সাভার মডেল থানা পুলিশ। শিশুটিকে জীবিত উদ্ধার করায় সাভার মডেল থানা পুলিশের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছে শিশুটির পরিবার।

এবিষয়ে সাভার মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সাইফুল ইসলাম বলেন, আটক দম্পতির বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করে দুপুরে আদালতে পাঠানো হয়েছে। আটককৃতদের বাড়ি বগুড়া জেলার শিবগঞ্জ থানার শোলাগাড়ি গ্রামে।