সীমান্তে ভারতীয়দের গুলিতে ফের বাংলাদেশি নিহত

শুক্রবার, জুলাই ৩, ২০২০

সিলেট: সিলেটের গোয়াইনঘাট সীমান্তে ভারতীয় দুর্বৃত্তদের গুলিতে আরেক বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার বিকেলের দিকে গোয়াইনঘাটের পাহাড়তলি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তির নাম মো. সিরাজ মিয়া (৪৫)। তিনি গোয়াইনঘাটের দমদমিয়া গ্রামের বাসিন্দা। গুলিতে আহত হয়েছেন একই গ্রামের মো. নাজিম উদ্দিন (৩৮) নামের এক ব্যক্তি। বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি ৪৮) সিলেট ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল আহমেদ ইউসুফ জামিল ঘটনাটি সংবাদমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে গত ১০ জুন গোয়াইনঘাটের কুলুমছড়া সীমান্ত এলাকায় একইভাবে ভারতীয় দুর্বৃত্তদের গুলিতে মিন্টু মিয়া (২৬) নামের এক বাংলাদেশি নিহত হন। তিনি গরু চরাতে সীমান্ত এলাকায় গিয়েছিলেন। ওই ঘটনার ১০ দিনের মাথায় দ্বিতীয় ঘটনা ঘটে বিজিবির ৪৮ ব্যাটালিয়ন এলাকার কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার কলাইরাগ সীমান্তে। ২০ জুনের ওই ঘটনায় ভারতীয় খাসিয়াদের গুলিতে বাবুল বিশ্বাস (৩৪) নামের এক বাংলাদেশি নিহত হন। দুটো ঘটনার প্রায় দুই সপ্তাহের মাথায় বাংলাদেশি নিহতের তৃতীয় ঘটনা ঘটল।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে নয়টায় বিজিবি ৪৮ ব্যাটালিয়নের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গোয়াইনঘাটের দমদমিয়া বিওপির দায়িত্বপূর্ণ এলাকার সীমান্তপিলার ১২৬১/১ ও ২-এসের মধ্যবর্তী সংলগ্ন পাহাড়তলি গ্রাম এলাকা দিয়ে চার বাংলাদেশি ভারতে প্রবেশ করেন। এ সময় তাঁদের লক্ষ্য করে আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে গুলি করেন ভারতীয় খাসিয়া নাগরিকেরা। এতে সিরাজ মিয়া গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান। তাঁর সঙ্গে থাকা নাজিম উদ্দিনও গুলিবিদ্ধ হন। বাকি দুজন কৌশলে পালিয়ে এসেছেন। তাঁরা বর্তমানে পলাতক। সিরাজের লাশ বাড়িতে নিয়ে রেখেছিলেন স্বজনেরা। পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে পরবর্তী আইনগত প্রক্রিয়া নিয়েছে। গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত একজন ও পলাতক দুজনের ব্যাপারে তথ্য নেওয়া হচ্ছে। তাঁদের বাড়ি বিছনাকান্দির হাদারপাড় বলে জানতে পেরেছে বিজিবি।

বিজিবি ৪৮ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল আহমেদ ইউসুফ জামিল বলেন, সীমান্তে অবৈধ চলাচল রোধে করোনা–পরিস্থিতির মধ্যেও টহল ও নজরদারি অব্যাহত রয়েছে। এ অবস্থায় সীমান্তবর্তী এলাকার বাংলাদেশি নাগরিকদের অবৈধভাবে ভারতে প্রবেশ না করার জন্য বারবার অনুরোধ জানানো হয়েছে। তা সত্ত্বেও অবৈধ অনুপ্রবেশের ঘটনা ঘটছে। এ কারণে অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যুর ঘটনা এড়ানো যাচ্ছে না।