মাধুরী-শ্রীদেবী-ঐশ্বরিয়াদের সেই ‘ড্যান্সগুরু’ আর নেই

শুক্রবার, জুলাই ৩, ২০২০

বিনোদন ডেস্ক : মাধুরী দীক্ষিত, শ্রীদেবী, ঐশ্বরিয়া রাই ও কারিনা কাপুরদের মতো কিংবদন্তি নায়িকাদের ‘ড্যান্সগুরু’, ভারতীয় নৃত্যশিল্পের বরেণ্য শিল্পী সারোজ খান আর নেই।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১টা ৫২ মিনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭২ বছর।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর খবরে জানানো হয়, গত ১৭ জুন হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর তার করোনা ভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। তবে তার শ্বাসকষ্ট ছিল।

ড্যান্সকে প্রাধান্য দেয়া বলিউড চলচ্চিত্রের জগতে সবার কাছে, বিশেষত নায়িকাদের কাছে পূজ্যজন ছিলেন সারোজ খান। এই নৃত্য নির্দেশক ও কোরিওগ্রাফারের ‘এক দো তিন’, ‘মেরে পিয়া ঘার আয়া’, ‘ডোলারে ডোলা’, ‘মার ডালা’ গানে নৃত্য নির্দেশনা ছিল অনবদ্য। বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় নারী কোরিওগ্রাফার ফারাহ খান ও গীতা কাপুরও সারোজ খানের সান্নিধ্য পেয়েছেন।

এদিকে সারোজ খানের মৃত্যুর খবরে গোটা বলিউডে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। ঋষি কাপুর থেকে শুরু করে সবশেষ সুশান্ত রাজপুত সিংয়ের মৃত্যুর শোক কাটকে না কাটতেই সারোজ খানের মৃত্যুতে স্তব্দ গোটা বি-টাউন।

১৯৫০ সালে মাত্র ৩ বছর বয়সে শিশু নৃত্যশিল্পী হিসেবে বলিউডে যাত্রা শুরু করেছিলেন সারোজ খান। এরপর ১৯৮৬ সালে ‘নাগিন’, ১৯৮৭ সালে ‘মিস্টার ইন্ডিয়া’, ১৯৮৮ সালে ‘তেজাব’, ১৯৮৯ সালে ‘চাঁদনী’ ও ১৯৯০ সালে ‘থানেদার’ ছবিতে কোরিওগ্রাফি সারোজ খানতে অন্য উচ্চতায় নিয়ে যায়।

১৯৪৮ সালের ২২ নভেম্বর মুম্বাই শহরে সারোজ খানের জন্ম। মৃত্যুকালে তিনি স্বামী, এক ছেলে ও দুই মেয়েসহ অসংখ্য ভক্ত-গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।