শহীদ জিয়াকে স্মরণ করার মানেই হলো গণতন্ত্রকে স্মরণ করা: দুদু

শনিবার, মে ৩০, ২০২০

ঢাকা : বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানকে স্মরণ করার মানেই হলো গণতন্ত্রকে স্মরণ করা বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান ও কৃষক দলের আহ্বয়ক শামসুজ্জামান দুদু।

তিনি বলেছেন,’জিয়াউর রহমানই প্রথম বাংলাদেশের গার্মেন্টস সেক্টর খোলেন এবং বিদেশে লোক পাঠানোর উদ্যোগ তিনিই নিয়েছিলেন। তেমনি বাংলাদেশের পররাষ্ট্র নীতিতে ব্যাপক পরিবর্তন এনেছিলেন। সেজন্য শহীদ জিয়াকে স্মরণ করার মানেই হলো গণতন্ত্রকে স্মরণ করা, বহুদলীয় গণতন্ত্রকে স্মরণ করা, বাংলাদেশের গৌরবময় ইতিহাসকে স্মরণ করা। এ কারণে তিনি হাজার বছর বাংলাদেশের মানুষের হৃদয়ে বেঁচে থাকবেন।’

শনিবার(৩০ মে) বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৩৯তম শাহাদতবার্ষিকী উপলক্ষে সুনামগঞ্জের পরিবহন শ্রমিকদের যারা দীঘ`দিন যাবত কর্মহীন তাদের মাঝে উপহার হিসেবে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ ভিডিও কলের মাধ্যমে উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপির এই শীর্ষনেতা বলেন, ‘শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় সাবেক রাষ্ট্রপতি। তিনি বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ থেকে শুরু করে মৃত্যু পর্যন্ত গণতন্ত্রের স্বপক্ষে কাজ করেছেন। তিনি সেই ব্যক্তি যিনি স্বাধীনতা ঘোষণা‌ করেছেন রণাঙ্গনের বীর মুক্তিযোদ্ধা সাবেক জনপ্রিয় রাষ্ট্রপতি। তিনি বহুদলীয় গণতন্ত্রের জন্য আজন্ম লড়াই করেছেন। তিনি কৃষি শিল্প-সংস্কৃতি, শিক্ষা ও উন্নয়নের প্রতিকৃতি। শহীদ জিয়াউর রহমান আশা-ভরসার স্থল যিনি জাতিকে বাঁচার পথ দেখিয়েছিলেন লড়াই করার পথ দেখিয়েছিলেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সহ সভাপতি নাদের আহমেদ, সেলিম উদ্দিন, জেলা যুবদলের সভাপতি আবুল মনসুর মো. শওকত, জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল নোমান, বিএনপি নেতা মোহাম্মদ আলী, জেলা যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক অ্যাডভোকেট কামাল হোসেন, দপ্তর সম্পাদক শাহ আলম, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক জুনেদ আহমদ, যুবদল নেতাদের মাঝে আরো উপস্থিত ছিলেন জুলফিকার আলম, সুমন, আল আমিন, মোহাম্মদ আলী, জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারন সম্পাদক একে সোহাগ, জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক নাসিম চৌধুরী, ছাত্রদল নেতা, এমদাদ, সাইফুল ইসলাম রাহি, মোস্তাক, সাব্বির, আফনান প্রমুখ।