র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ শিশুহত্যা মামলার আসামি নিহত

সোমবার, মে ৪, ২০২০

গাজীপুর: গাজীপুরের র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) সঙ্গে গোলাগুলিতে জুয়েল আহমেদ ওরফে সবুজ (২২) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। তিনি শিশু আলিফ হত্যা মামলার পলাতক আসামি ছিলেন।

রোববার দিবাগত রাতে কোনাবাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এর আগে চাঞ্চল্যকর এই হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার দায়ে সাগর নামে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে র‌্যাব-১ এর পোড়াবাড়ি ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, শনিবার রাতে সিটি করপোরেশনের পূবাইল এলাকা থেকে আলিফ হত্যাকাণ্ডে জড়িত জুয়েলের বন্ধু সাগরকে আটক করা হয়। রোববার দুপুরে তিনি হত্যাকাণ্ডের বর্ণনা দেন। পরে তার দেওয়া তথ্যমতে, নিজ বাড়ির ঝুটের গুদাম থেকে শিশু আলিফের অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এ ছাড়া জুয়েলের বিষয়েও তথ্য দেন সাগর। তার দেওয়া তথ্যানুযায়ী, রোববার দিবাগত রাতে কোনাবাড়ি এলাকায় জুয়েলকে গ্রেপ্তার করতে অভিযান চালানো হয়। এ সময় টের পেয়ে র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় জুয়েল। আত্মরক্ষার্থে র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালালে ঘটনাস্থলেই তিনি নিহত হন।

এ ঘটনায় র‌্যাবের দুই সদস্য আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল ও গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান আব্দুল্লাহ আল মামুন।

এর আগে বাবা ফরহাদ হোসেনের দেওয়া থাপ্পড়ের প্রতিশোধ নিতে গত ২৯ এপ্রিল তার পাঁচ বছরের শিশু আলিফ হোসেনকে অপহরণ করেন সাগর ও জুয়েল। পরে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করে প্লাস্টিকের বস্তায় ভরে ঝুটের গুদামে ফেলে রাখা হয়।