ঠুনকো অজুহাতে খালেদা জিয়াকে কারাগারে রাখা হয়েছে: আলাল

শনিবার, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২০

ঢাকা; ওয়ামী লীগের ভেতর ‘সাচ্চা আওয়ামী লীগ’ খোঁজার জন্য দলটির ডিএনএ টেস্ট করানো উচিত মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার উদ্দেশ্যে বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব ও যুবদলের সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেছেন, ‘আপনার বাবা শেখ মুজিব সম্মানিত নেতা, তাঁকে বিতর্কিত করেছেন আপনি নিজেই। নিজের বাবাকে প্রাণবন্ত করার জন্য নিজের ভ্যানিটি ব্যাগে ঢুকিয়েছেন আপনি নিজেই। এবার ডিএনএ টেস্ট করে দেখেন, আপনি (প্রধানমন্ত্রী) ছাড়া সত্যিকারের আওয়ামী লীগ আছে কি না।’

তিনি বলেন, ‘আজ আওয়ামী লীগ নাই। আওয়ামী লীগ যদি থাকতো তাহলে তাদের দলের সাধারণ সম্পাদক থেকে শুরু করে দলের প্রধান এবং অন্যান্য নেতারা বলতো না আওয়ামী লীগে জামাত-শিবির ও রাজাকারের সন্তানেরা ঢুকে পড়েছে, সুবিধাবাদীরা ঢুকে পড়েছে। এতই যদি বুঝেন তাহলে আওয়ামী লীগের ডিএনএ টেস্ট করেন। ডিএনএ টেস্ট করে দেখেন আপনি (প্রধানমন্ত্রী) ছাড়া সত্যিকারের আওয়ামী লীগ আছে কি না। কারণ আপনি আওয়ামী লীগের প্রধান। অবৈধ সরকারের প্রধানমন্ত্রী দুঃখ করে বলেছেন- শেখ মুজিবের মৃত্যুর সময় তিনি কাউকে পাশে পান নাই। পুলিশ, রক্ষীবাহিনী এবং দলের নেতাকর্মীও না।’

শ‌নিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লা‌বের সাম‌নে জাতীয়তাবাদী মু‌ক্তিযু‌দ্ধ প্রজন্মের উদ্যোগে আপসহীন দেশ‌নেত্রী বেগম খা‌লেদা জিয়ার নিঃশর্ত মু‌ক্তির দা‌বি‌তে এক মানববন্ধ‌নে তি‌নি এসব কথা ব‌লেন।

আলাল বলেছেন, ‘বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য আদালত থেকে শুরু করে যেখানে যা করা প্রয়োজন তা করার জন্য আমরা শপথে বলিয়ান। আমরা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয়েছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘একই কথা বলতে বলতে এখন আর ভালো লাগে না। এখন কাজ করে কিছু দেখানো উচিত সবার। সেই কাজের প্রচেষ্টায় আমরা মাঠে রয়েছি, ঘরে রয়েছি, টকশোতে রয়েছি, রাস্তায় যে কোন সময়ে রয়েছি, বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য।’

প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘আজ মুজিববর্ষ পালন করছেন। শেখ মুজিব সম্মানিত নেতা, তাঁকে বিতর্কিত করেছেন আপনি নিজেই। আপনার বাবাকে প্রাণবন্ত করার জন্য নিজের ভ্যানিটি ব্যাগে ঢুকিয়েছেন আপনি নিজেই। মুজিববর্ষ পালনের যে বিশাল কর্মপরিকল্পনা তার প্রধান করেছেন একজন সচিবকে। আওয়ামী লীগের কোনও নেতাকে নয়। সিটি করপোরেশন নির্বাচন হল আওয়ামী লীগের এত ভালো ভালো নেতা থাকতে একজন ব্যবসায়ী আতিকুল ইসলামকে মেয়র বানালেন। ঐতিহ্যবাহী ধানমন্ডি আসনে একজন ব্যবসায়ীকে মনোনয়ন দিলেন। এজন্য সবার আগে আওয়ামী লীগের ডিএনএ টেস্ট করা দরকার।’

যুবদলের সাবেক সভাপতি বলেন, ‘ঠুনকো অজুহাতে বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে রাখা হচ্ছে। আর বেসিক ব্যাংকের বাচ্চুকে জুয়ার বোর্ডে বানিয়েছেন কাচ্চু। বাচ্চুকে কাচ্চু বানিয়ে তাকে ধরা হচ্ছে না। দুদকও তাকে ডাকার সাহস পাচ্ছে না। অথচ বেসিক ব্যাংকের কেলেঙ্কারি বাংলাদেশের মানুষের মুখে মুখে। এতকিছুর মধ্য দিয়ে আপনার (প্রধানমন্ত্রী) বাবার মুজিববর্ষ পালন করবেন ভালো কথা, তবে তার আগে জনগণকে তাদের অধিকার ফিরিয়ে দেন। চাল, ডাল, পেঁয়াজ নিয়ে অনেক কারবার করেছে। রমজান আর দুমাস বাকি, তখন আবার এই তেলেসমাতি শুরু হবে। আর আপনার মন্ত্রীরা বলবে ‘দুঃখ কষ্টের দিন শেষ, কচুরিপানার বাংলাদেশ’। জাতির সাথে এসব বিদ্রুপ জাতি আর বেশি দিন সহ্য করবে না।’

তিনি বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে আনার মধ্য দিয়ে গণতন্ত্রের যে লক্ষ্য সেই পথে যত বাধা আসুক আমরা জানি- বিবেকবান মানুষ যারা, ইউনিফর্ম কিংবা সাধারণ পোশাক পরিহিতই হোক আপনারা সরকারের দিকে তাকাবেন না। কারণ এ দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য বর্তমান সরকারের পরিবর্তন অপরিহার্য।’

জাতীয়তাবাদী মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্মের সভাপতি কালাম ফয়েজীর সভাপতিত্বে মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর হাফিজ, স্বনির্ভরবিষয়ক সম্পাদক শিরিন সুলতানা, নির্বাহী কমিটির সাদস্য বিলকিস ইসলাম প্রমুখ।