জাবিতে তিনদিনব্যাপী ‘ডট আর্টিস্ট’ চিত্রপ্রদর্শনী

বুধবার, ডিসেম্বর ২৫, ২০১৯

সাঈদ ইবরাহীম, জাবি প্রতিনিধি : অতিথি পাখির অভয়ারণ্য হিসেবে খ্যাত জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে এবারের চিত্র একটু অন্যরকমই। বরাবরই শীতের সময় ঢাকার সাধারণ অঞ্চলের থেকে একটু বেশিই শীত পড়ে এখানে। তবে এবার শীত পড়েছে, শুধু জাহাঙ্গীরনগরেই নয়, পুরো ঢাকাজুড়ে। অনেকে এই আবহাওয়াকে রেফ্রিজারেটরের ঠান্ডার সাথে তুলনা করছেন।

তবে, গতবছর জাবিতে অতিথি পাখি না আসার হাহাকারে ভোগা প্রকৃতি প্রেমীদের জন্য রয়েছে সুখবর। এবার যে অতিথি পাখির কলরবে মুখর জাবির জলাশয়গুলো!

পাখিগুলো মূলত সুদূর সাইবেরিয়া থেকে শুরু করে হিমালয়ের দেশগুলো থেকে এখানে ছুটে আসে। শীত শুরু হলেই একটু ভাল সংস্থানের আশায় ছুটে আসা। সাথে সাথে প্রকৃতি যেন জানান দিয়ে দেয়, শীত এসেছে।

গত কয়েকদিন ধরে হাড় কাঁপানো শীতের সাথে ঘন কুয়াশা, সব মিলিয়ে অন্যতম শীতল ডিসেম্বর পার করছে পুরো জাতি। আবার, জাহাঙ্গীরনগরের শীতটা অন্য যেকোন জায়গা থেকে আসলে একটু বেশিই। তা বলে শিল্পীদের শিল্পকর্ম থেমে থাকবে কেন?

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় সহ আরও কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের একঝাঁক তরুণ প্রতিশ্রুতিশীল চিত্রশিল্পী আয়োজন করেছেন অতিথি পাখিদের নিজ হাতে ক্যাপচার করার এক অনিন্দ সম্ভার। রঙতুলিতে অতিথি পাখিদের চিত্রবন্দী করা। শুধু চিত্রবন্দী নয়, মূল উদ্দেশ্য চিত্রকর্মের মাধ্যমে জাবির সৌন্দর্য এবং অতিথি পাখি এ দুয়ের মিশেল সবার কাছে তুলে ধরা।

ঠান্ডায় কাবু হয়ে থাকা জড়োসড়ো প্রকৃতির নিজ রূপে ধীরে ধীরে জেগে ওঠে, সেই সাথে মানুষের পদচারণা বাড়তে থাকে বেলা বাড়ার সাথে সাথে। দৈনন্দিন কাজকর্ম করতে হবে তো! ওদিকে আলোর আভা ফুটতে শুরু করেছে চারদিকে। কুয়াশা কেটে শিশিরের আগমন, সাথে রোদের ঝলকানি। এমন দৃশ্যের তুলনা হয় বলুন?

এদিকে, জলাশয়ে দেখা মিলছে ডাহুক, ডাহুক ছানার। মুক্তমনে মুক্ত বিচরণ যেন। এক শাপলা থেকে আরেক শাপলায় লাফিয়ে বেড়াচ্ছে। হঠাত ডুব দিয়ে আরেক প্রান্ত থেকে মাথা উঠোচ্ছে। ওদিকে আরেকদল জোট বেধে আকাশে মহড়া দিচ্ছে, এ প্রান্ত থেকে ও প্রান্ত, বারংবার।

শিল্পীমন কি এগুলো দেখে থেমে থাকতে পারে? এমন পরিবেশ থেকে স্বভাবতই উদ্বেলিত হয়ে উঠছে, হাতের তুলি নিশপিশ করে উঠছে অতিথি পাখিদের চিত্রবন্দী করতে।

‘প্রকৃতির সান্নিধ্যে শিল্পীদের বসবাস’ স্লোগানকে ধারণ করে গত ২৩শে ডিসেম্বর(সোমবার) জাবিতে শুরু হয়ে গেছে ‘ডট আর্টিস্ট’ গ্রুপের আউটডোর এই ক্যাম্পটি। তিনদিন ব্যাপী এই ক্যাম্পে রয়েছেন জাহাঙ্গীরনগর সহ ত্রিশটি বিশ্ববিদ্যালয়ের তরুণ চিত্রশিল্পীরা। এবারের এই আয়োজন সংগঠনটির ত্রিশতম ক্যাম্প। উদ্দেশ্য, জাবি এবং অতিথি পাখির সৌন্দর্যকে হাতের তুলির মাধ্যমে ফুটিয়ে তোলা।

গত সোমবার ও মঙ্গলবার সারাদিন জুড়ে চলে এই অতিথি পাখির চিত্রকর্ম তৈরির ক্যাম্পের কাজ। চিত্রকর্ম তৈরীর কাজ শেষ হয় আজ দুপুর তিনটায়। বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রান্সপোর্ট চত্বরে চলছে প্রদর্শনী। প্রদর্শনীতে উপস্থিত সংখ্যা ছিলো চোখে পড়ার মতো। বাচ্চা থেকে বুড়ো সকলেরই সরব অংশগ্রহণ ছিলো খেয়াল করার মতো।

ক্যাম্পের অন্যতম মূল আয়োজকদের একজন, ইউনিভার্সিটি অব ডেভেলপমেন্ট অল্টারনেটিভ(ইউডা) এর স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থী দীপ্ত মোদক তার প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন এভাবে, ‘এই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিটি পরতে পরতে লুকিয়ে আছে সৌন্দর্য। শীতের মৌসুমে এই অপরূপ) অলঙ্কার অতিথি পাখি। শিল্পচর্চার মাধ্যমে প্রকৃতির সৌন্দর্য এবং রূপবৈচিত্র্য শিল্পীর ভাষায় সবার কাছে তুলে ধরাই আমাদের উদ্দেশ্য। ডট আর্টিস্ট গ্রুপের তরুণ শিল্পীরা একসঙ্গে সৃজনশীল শিল্পচর্চার আয়োজন করেছে। শীতকালে জলরঙের মধ্যমে শিল্পীদের মনে ভাব প্রকাশ করার আনন্দ অন্যরকম।’