ভারতের বিষয় নিয়ে কথা বলা ডাকসুর কাজ নয়: তথ্যমন্ত্রী

সোমবার, ডিসেম্বর ২৩, ২০১৯

ঢাকা : ভারতের ঘটনা নিয়ে সমালোচনা করা ডাকসু ভিপির কাজ নয় বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, ‘তাদের কাজ হচ্ছে ছাত্রদের বিষয় নিয়ে কথা বলা। কিন্তু তারা সেটি করেনি। এ হামলায় কোন ইন্দন আছে কিনা, সেটি তা দেখার প্রয়োজন আছে।’

সোমবার (২৩ ডিসেম্বর) সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ে নিজ দপ্তরে সমসাময়িক ইস্যু নিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

সরকারকে বেকায়দায় ফেলার জন্য বিভিন্ন মহল ষড়যন্ত্র করছে। ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুরের ওপর হামলা এরই অংশ কিনা তার তদন্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

তিনি বলেন, সেখানে যে ধরনের ঘটনা ঘটেছে তাতে কারো উসকানি বা ইন্দন ছিল কিনা সেটা দেখা হচ্ছে। আমরা আগেও দেখেছি ডাকসু ভিপি নুর আলোচনায় থাকতে চান।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বলেন, যে ঘটনা ঘটেছে, এটি অত্যন্ত দুঃখজনক, অনভিপ্রেত, অগ্রহণযোগ্য। আমরা কখনো এ ধরনের হামলাকে সমর্থন করি না। তবে এখানে একটি প্রশ্ন থেকে যায়, নুর কেন বহিরাগতদের নিয়ে সেখানে গেলেন, এতগুলো বহিরাগতদের নিয়ে সেখানে যাওয়ার কী প্রয়োজন ছিল?

তথ্যমন্ত্রী বলেন, হামলার পরপরই আমাদের দলের দু’জন নেতা জাহাঙ্গীর কবির নানকসহ সেখানে গিয়েছিলেন সমবেদনা জানাতে, তারা দলের অবস্থানের কথা পরিষ্কার করেছেন। আজকে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের দল ও সরকারের পক্ষ থেকে কথা বলেছেন। আমাদের বক্তব্যও একই, আমরা এ ধরনের ঘটনা সমর্থন করি না।

তিনি বলেন, মুক্তিযোদ্ধা মঞ্চের ব্যানারে ছাত্রলীগ-ছাত্রফ্রন্ট এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী যেকোনো সংগঠনের নেতারা থাকতে পারে। কিন্তু ঘটনা ঘটেছে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের ব্যানারে।

এর আগে রোববার (২২ ডিসেম্বর) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সহ-সভাপতি নুরুল হক নুরের রুমসহ ডাকসু ভবনে ভাঙচুর চালায় মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ। এসময় নুরসহ আহত হয়েছেন প্রায় ১৫ থেকে ২০ জন শিক্ষার্থী। এদের মধ্যে ২২ ডিসেম্বর সন্ধ্যার পরে তুহিন ফারাবীকে ঢাকা মেডিক্যাল হাসপাতালের জেনারেল আইসিইউতে রাখা হয়েছিল। ২৩ ডিসেম্বর ফারাবীর শারীরিক অবস্থার উন্নতি হওয়ায় তাকে ওয়ার্ডে স্থানান্তর করা হয়।