টোলের টাকায় সড়ক সংস্কার হবে: অর্থমন্ত্রী

বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১৯, ২০১৯

ঢাকা : অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, প্রতিটি মহাসড়কে টোল আদায়ের ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা রয়েছে। টোলের টাকা দিয়েই সড়ক সংস্কারের ব্যবস্থা করতে হবে।

তিনি বলেন, সড়ক সংস্কারে সরকারের পক্ষ থেকে প্রতিবছর বিপুল পরিমাণে টাকা দেওয়া সম্ভব হবে না।

আজ বৃহস্পতিবার (১৯ ডিসেম্বর) শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত ‘মহাসড়কের লাইফটাইম: চ্যালেঞ্জ ও করণীয়’ বিষয়ক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, রাস্তার খারাপ অবস্থার কারণে নিজের এলাকায় যেতে লজ্জা লাগে। শুধু রাস্তা তৈরির বহু প্রকল্প নেয়া হয়, কিন্তু রক্ষণাবেক্ষণে নজর দেয়া হয় না। এটা ঠিক নয়।

তিনি বলেন, অনেক ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি নেই, তারপরও শুধু তারাই কাজ পায়। এদের কারণে বিদেশি ভালো প্রতিষ্ঠানও কাজ পায় না।

একনেকের প্রায় প্রতিটি সভায় সড়ক প্রকল্প নেওয়া হচ্ছে জানিয়ে আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, অর্থায়ন ও বাস্তবায়নের সক্ষমতা বিবেচনা করে নতুন প্রকল্প নিতে হবে। এ সময় চলমান প্রকল্পগুলো টেকসইভাবে বাস্তবায়নের পরামর্শ দেন মন্ত্রী।

তিনি বলেন, কাজের সংখ্যা না বাড়িয়ে গুণগত মান বাড়াতে হবে। আমরা চাই, আপনারা দক্ষ জনবলের কাছে কাজ দেন। তাহলে মানসম্মত কাজ পাওয়া যাবে। আপনারা এক কোম্পানিকে একাধিক কাজ দেন। একাধিক কাজ দেওয়ার ফলে ওই কোম্পানিগুলো বিভিন্ন সময় অনেক কাজ আটকে দেয়। এ জন্য এক কোম্পানিকে বার বার কাজ দেওয়া যাবে না। কোনো কোম্পানি কাজ নিয়ে গাফিলতি করলে শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।

মন্ত্রী আরও বলেন, টেকসই সড়ক নির্মাণের লক্ষ্যে বিদেশি দক্ষ ঠিকাদারকে কাজ দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল। দেশি কোম্পানিগুলোর জন্য তাদেরকে কাজ দেওয়া হয়নি।

গাড়ির জন্য অটোমেটিক টোল সিস্টেম চালুর পরামর্শ দিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, প্রতিটি গাড়ির জন্য প্রিপেইড মিটারের ব্যবস্থা করতে হবে। নির্দিষ্ট সীমা পার হলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে বিল পরিশোধ হবে। ফলে টোলপ্লাজায় কোনো যানজট হবে না।

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সচিব নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে সেমিনারে বিশেষ অতিথি ছিলেন বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য একাব্বর হোসেন, চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন এবং প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের সাবেক এসডিজিবিষয়ক সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ।