মৃত্যুদণ্ডের রায় নিয়ে যা বললেন পারভেজ মোশাররফ

বুধবার, ডিসেম্বর ১৮, ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগে পাকিস্তানের সাবেক সামরিক শাসক জেনারেল পারভেজ মোশাররফকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন দেশটির আদালত। গতকাল মঙ্গলবার (১৭ ডিসেম্বর) ইসলামাবাদের আদালতে দেয়া এ রায়ের প্রতি অনাস্থা প্রকাশ করেছেন সাবেক এই সেনাপ্রধান।

তিনি বলেছেন, ‘আমি ভুক্তভোগী হয়েছি। রায় এখনও পুরোপুর শুনিনি। তবে আমি যে ন্যায়বিচার পাবো না সেটি আগে থেকেই জানতাম। আমার প্রতি অন্যায় করা হয়েছে। আমি ন্যায়বিচার পাইনি।’

ইসলামাবাদের আদালতে সাবেক এই পাক রাষ্ট্রপতির বিরুদ্ধে মৃত্যুদণ্ডের রায় ঘোষণার সময় তিনি সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে একটি হাসপাতালের বিছানায় চিকিৎসাধীন ছিলেন। সেখান থেকেই এক ভিডিও বার্তায় তিনি এসব কথা বলেন।

তার বিরুদ্ধে দেড় যুগ আগে আনা এই রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলাকে সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন দাবি করে পারভেজ মোশাররফ বলেন, ‘আমি ১০ বছর পাকিস্তানকে নেতৃত্ব দিয়েছি। আমি আমার দেশের জন্য লড়েছি।’

২০০৭ সালের ৩ নভেম্বর জরুরি অবস্থা জারির অভিযোগে দেশটির আদালতে মোশাররফের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহী মামলা হয়। ২০১৩ সালের ডিসেম্বর থেকে এই মামলার রায় আদালতে ঝুলে ছিল।

সামরিক ক্যু’র মাধ্যমে ১৯৯৯ সালে ক্ষমতা দখল করেন পারভেজ মোশাররফ। ২০০১ থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট ছিলেন তিনি। রাষ্ট্রদ্রোহ, জরুরি অবস্থা জারি, বেআইনি উপায়ে বিচারপতি বরখাস্ত, বেনজির ভুট্টো হত্যা এবং লাল মসজিদ তল্লাশি অভিযান-সংক্রান্ত বেশ কয়েকটি মামলায় পলাতক রয়েছেন সাবেক এই পাক সেনাপ্রধান। চিকিৎসার জন্য অনুমতি নিয়ে ২০১৬ সালে দেশ ছেড়েছিলেন সাবেক এই প্রেসিডেন্ট।