এখন আ.লীগকে মানুষ বলবে ‘তুই রাজাকার’, ‘তুই রাজাকার’: আলাল

বুধবার, ডিসেম্বর ১৮, ২০১৯

ঢাকা : মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়ের করা রাজাকারের তালিকা প্রসঙ্গে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও যুবদলের সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেছেন, ‘রাজাকারের দিক দিয়ে আওয়ামী লীগ সংখ্যাগরিষ্ঠ। গত বিজয় দিবসে প্রকাশিত যে রাজাকারের তালিকা সেখানে ৮ হাজারের বেশি নাম আওয়ামী লীগের লোকের, আর জোর করে বিএনপির এক হাজার নাম ঢুকিয়েছে। এখন তো বলতেই হবে আওয়ামী লীগ রাজাকারের দল। আওয়ামী লীগকে দেখলে লোকজন বলবে ‘তুই রাজাকার’, ‘তুই রাজাকার’।’

বুধবার (১৮ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় রাজধানীর মহানগর নাট্যমঞ্চে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে বিএনপি আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, ‘গতকাল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন- ‘পাকিস্তানের দোসররা এখনো সক্রিয়, ষড়যন্ত্র করছে।’ কিন্তু আসল পাকিস্তানের চর হলো মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। তিনি পাকি ষড়যন্ত্রকারীদের হোতা। তিনি পাকিদের তৈরি করা তালিকা প্রকাশ করেছেন।’

‘এখন তিনি (মোজাম্মেল হক) বলছেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রেরিত নথি তিনি প্রকাশ করেছেন। আবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ‘তাদের দেয়া নোট যাচাই-বাছাই করা হয়নি। এখন একে অপরকে দুষছেন। এখনতো আওয়ামী লীগকে দেখলে লোকজন বলবে ‘তুই রাজাকার’, ‘তুই রাজাকার’।’

বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী এবং সহ-প্রচার সম্পাদক আমিরুল ইসলাম আলিমের সঞ্চালনায় দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সভাপতিত্বে সভায় অন্যদের মধ্যে স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ডঃ আব্দুল মঈন খান, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু, আব্দুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েল, মুক্তিযোদ্ধা দলের সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান আহমেদ প্রমুখ বক্তব্য দেন।