ভালোবেসে বিয়ের ২ মাসের মাথায় স্বামীর ছুরিকাঘাতে স্ত্রীর মৃত্যু

শনিবার, নভেম্বর ৩০, ২০১৯

ঢাকা: রাজধানীর ভাটারা থানার কুড়িল এলাকায় স্বামীর ছুরিকাঘাতে কানিজ ফাতেমা টুম্পা (২৫) নামে এক গৃহবধূ নিহত হয়েছেন।
বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে তাকে ছুরিকাঘাত করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার রাত ৯টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে আইসিইউতে তার মৃত্যু হয়।
নিহত টুম্পার পরিবার সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।
নিহতের গ্রামের বাড়ি বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ উপজেলার মধ্য কাটাদিয়া গ্রামে। তিনি শাহ আলমের মেয়ে। বর্তমানে তার পরিবার নিয়ে কুড়িল চৌরাস্তা এলাকায় থাকতেন। চার বোনের মধ্যে সবার বড় ছিলেন টুম্পা।
টুম্পার ছোটবোন আয়শা আক্তার জানান, শান্তা মারিয়াম ইউনিভার্সিটির বিবিএ শেষ বর্ষে পড়ছিলেন টুম্পা। দীর্ঘদিন প্রেমের সম্পর্কের পর দুই মাস আগে তিনি সাফখাত হাসান রবিন নামের এক যুবককে বিয়ে করেন। তিনিও কুড়িল চৌরাস্তা এলাকায় থাকেন।
তিনি জানান, রবিন মাদকাসক্ত। বিয়ের পর থেকেই পারিবারিক সমস্যা লেগেইছিল। বৃহস্পতিবার টুম্পাই তার বাবা-মাকে ফোন করে তাকে আনতে যেতে বলেন। পরে তার খালা নাজমা তাকে আনতে যান। আনার পথে চৌরাস্তাতে পেছন থেকে রবিন টুম্পার পিঠে ছুরিকাঘাত করেন। পরে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে কুর্মিটোলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর তাকে রাতেই ঢাকা মেডিকেলের আইসিইউতে ভর্তি করানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।
ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ বক্সের ইনচার্জ(ইন্সপেক্টর) বাচ্চু মিয়া জানান, ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের লাশ মর্গে রাখা হয়েছে।