৩০ জুন পর্যন্ত সড়ক আইনের কয়েকটি ধারায় শিথিলতা

রবিবার, নভেম্বর ২৪, ২০১৯

ঢাকা: নতুন সড়ক আইন ২০১৮ এর কয়েকটি ধারা আগামী ৩০ পর্যন্ত কার্যকরের ক্ষেত্রে শিথিলতা আনা হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে- বিআরটিএ গাড়ির ফিটনেস, ট্যাক্স টোকেন, ড্রাইভিং লাইসেন্স দেওয়ার পর আইন বাস্তবায়ন শুরু হবে। এ বিষয়ে চার সদস্য বিশিষ্ট সাব-কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই কমিটি আগামী দুই মাস পরে রিপোর্ট দিবে।

রবিবার (২৪ নভেম্বর) বিকালে সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সড়কে নিরাপত্তা ও শৃঙ্খলা ফেরাতে গঠিত জাতীয় সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের প্রথম বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সড়ক নিরাপত্তা আইন ২০১৮ আইনের কয়েকটি ধারা নিয়ে অসঙ্গতি আছে- এমন অভিযোগ উত্থাপন করে সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন। বিষয়টি নিয়ে একাধিক বৈঠক হয়েছে। সেসব বৈঠকের আলোচনার বিষয় নিয়ে আজ অনুষ্ঠিত হলো সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের প্রথম বৈঠক। দুই মাস পর আবার এ কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, বৈঠকে সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জন-নিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. কামাল উদ্দীন আহমেদসহ তিন জনকে কোঅপ্ট করা হয়েছে। এছাড়া সড়ক ও যোগাযোগ বিভাগের সচিব, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব, তথ্য মন্ত্রণালয়ে সচিব এবং স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিবকে নিয়ে চারটি সাব-কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই সাব-কমিটি সড়ক নিরাপত্তা আইনের কয়েকটি ধারা নিয়ে শ্রমিক ফেডারেশনের উত্থাপিত অভিযোগের বিষয়ে অসঙ্গতি আছে কি-না, তা অনুসন্ধান করে রিপোর্ট পেশ করবে। এর পর কাউন্সিলের বৈঠকে বিষয়টি চূড়ান্ত হবে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সভাপতিত্বে বৈঠকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব কামাল উদ্দীন আহমেদ, আইজিপি ড. মোহাম্মদ জবাদ পাটোয়ারী, পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি শাজাহান খান, কলামিস্ট সৈয়দ আবুল মকসুদ ও নিরাপদ সড়ক চাই চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চনসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের সচিবরা উপস্থিত ছিলেন।