২ বাংলাদেশিকে ধরে নিয়ে গেছে বিএসএফ

রবিবার, নভেম্বর ২৪, ২০১৯

রাজশাহী: রাজশাহীর বাঘা উপজেলার হরিরামপুর সীমান্ত এলাকা থেকে দুই বাংলাদেশিকে ঘাস কাটার সময় ধরে নিয়ে গেছে বিএসএফ। তাদের বর্তমানে ভারতের মুর্শিদাবাদ জেলার জলঙ্গী থানায় আটক করে রাখা হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

শনিবার (২৩ নভেম্বর) দুপুরে তাদের ধরে নিয়ে যায় বিএসএফ। আটককৃত ২ বাংলাদেশি শ্রমিক হলেন- রাজশাহীর বাঘা উপজেলার মীরগঞ্জ ভানুকর গ্রামের তছির উদ্দিনের ছেলে এরাজুল ইসলাম (৫০) ও মৃত মিনু মন্ডলের ছেলে সুমন আলী (৩৫)।

রাতে রাজশাহী বিজিবি-১ ব্যাটালিয়নের কমান্ডিং অফিসার (সিও) ফেরদৌস জিয়া উদ্দিন মাহমুদ সাংবাদিকদের এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশি দুই শ্রমিককে ফিরিয়ে আনার জন্য চিঠি দেওয়া হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত বিএসএফের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। এরপরও বিজিবির পক্ষ থেকে বিএসএফের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা চলছে।

এদিকে রাজশাহীর বাঘায় থাকা বিজিবি-১ ব্যাটালিয়নের আলাইপুর ক্যাম্পের ইনচার্জ আবু তালেব জানান, শনিবার বেলা ১১টার দিকে ওই দু্ইজন ব্যক্তি বাঘা উপজেলার হরিরামপুর সীমান্তের পদ্মা নদীর ২নং কলোনীর চরে গরুর জন্য খ্যাড় (খড়) কাটতে যান। এই সময় ওপারে থাকা ভারতের মুর্শিদাবাদ জেলার জলঙ্গী থানার দয়ারামপুর ক্যাম্পের বিএসএফ সদস্যরা এসে তাদের দুইজনকে ধরে নিয়ে যায়। পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে তাদের ফেরত আনার চেষ্টা চলছে।

আটক শ্রমিক এরাজুল ইসলামের ছেলে রাসিদুল ইসলাম জানান, তারা খুবই হত-দরিদ্র। শ্রমিকের কাজ করে সংসার চলে। তার বাবা শ্রমিক হিসেবে হরিরামপুর পদ্মা নদীর ২ নম্বর কলোনীর চরে খড় কাটতে যান। সেখান থেকে তার বাবাসহ আরও একজনকে ধরে নিয়ে গেছে ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বাহিনী বিএসএফ।