নিউইয়র্কে সৌদি দুই বোন খুন, দানা বাঁধছে রহস্য

শুক্রবার, নভেম্বর ২, ২০১৮

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: নিউইয়র্কের হাডসন নদীর তীরে সৌদি আরবের নাগরিক দুই বোনের হাত-পা বাঁধা মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে মার্কিন পুলিশ। স্কস টেপ দিয়ে পেঁচানো পরস্পরের দিকে মুখ করে রাখা অবস্থায় পাওয়া যায় সৌদির এ দুই নাগরিকের মরদেহ। সম্প্রতি ওই দুই কিশোরী যুক্তরাষ্ট্রে আশ্রয়ের আবেদন করেছিলেন। কিন্তু গত মঙ্গলবার নিউইয়র্কে নিযুক্ত সৌদি কনস্যুলেট থেকে টেলিফোন করে যুক্তরাষ্ট্র ছেড়ে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। এই নির্দেশের একদিন পর তাদের মরদেহ উদ্ধারের ঘটনা ঘিরে দানা বাঁধছে রহস্য। অনেকে বলছেন তারাও হয়তো তুরস্কে খুন হওয়া সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগির ভাগ্যবরণ করেছেন। নিউইয়র্ক পুলিশ বলছে, তালা ফারিয়া (১৬) ও রত্না ফারিয়া (২২) মরদেহে কোনো ধরনের আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। তদন্তকারীরা বলেছেন, তারা আত্মহত্যা করেছেন না-কি অন্য কোনো অপরাধের কারণে হত্যার শিকার হয়েছেন সে ব্যাপারে এখনই মন্তব্য করাটা একটু তাড়াতাড়ি হয়ে যাবে। মার্কিন কর্মকর্তাদের তথ্য বলছে, ২০১৫ সালে সৌদি আরব থেকে ফারিয়া ও তার বোন মাকে নিয়ে ভার্জিনিয়ার ফেয়ারফ্যাক্সে আসেন। পুলিশ প্রথমের দিকে এই দুই কিশোরী জর্জ ওয়াশিংটন সেতু থেকে লাফিয়ে আত্মহত্যা করে থাকতে পারে বলে ধারণা করেছিল। কিন্তু তাদের শরীরে কোনো ধরনের আঘাতের চিহ্ন না পাওয়ায় সেই ধারণা বাতিল করে দেওয়া হয়। গোয়েন্দা পুলিশের প্রধান দেরমত শিয়া বলেছেন, আমি আত্মবিশ্বাসী, আসলে কি ঘটেছিল সে ব্যাপারে তদন্ত শেষে আমরা পরিষ্কার একটা ধারণা পাব। বিবিসি

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন