৬ ঘণ্টার গণঅনশন করছে বিএনপি

বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১, ২০১৮

ঢাকা : ঢাকা মহানগর নাট্যমঞ্চ প্রাঙ্গণে ৬ ঘণ্টার গণঅনশন পালন করছেন বিএনপির নেতাকর্মীরা। জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সাজা দেয়ার প্রতিবাদ ও তার মুক্তির দাবিতে সারাদেশে গণঅনশন কর্মসূচি পালন করছে দলটি।

বৃহস্পতিবার (১ নভেম্বর) সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত চলবে এ প্রতীকী অনশন।

এ কর্মসূচিতে অংশ নিতে সকাল থেকেই রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে জড়ো হতে থাকেন বিএনপি ও এর অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। এ সময় তাদেরকে ‘বন্দি আছে আমার মা, ঘরে ফিরে যাবো না’, ‘হামলা করে আন্দোলন বন্ধ করা যাবে না’ ইত্যাদি স্লোগান দিতে দেখা যায়।

বিএনপির নেতারা অভিযোগ করে বলছেন, মিথ্যা মামলায় খালেদা জিয়াকে সাজা দিয়ে কারাগারে আটকে রাখা হয়েছে। সরকার খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানকে বাইরে রেখে একতরফা নির্বাচন করার ষড়যন্ত্র করছে। কিন্তু দেশের জনগণ তা মেনে নেবে না। নেতাকর্মীদের হাতে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের ছবি সম্বলিত ফেস্টুন ও তাদের মুক্তির দাবিতে বিভিন্ন স্লোগানযুক্ত ব্যানার দেখা যায়।

কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছেন, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ভাইস চেয়ারম্যান এজেডএম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আমানউল্লাহ আমান, জয়নুল আবদিন ফারুক, আতাউর রহমান ঢালী, কেন্দ্রীয় নেতা ফজলুল হক মিলন, সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানীসহ অঙ্গসংগঠনের নেতারা।

এর আগে বুধবার (৩১ অক্টোবর) সকাল থেকে দেশের সর্বোচ্চ আদালতের প্রাঙ্গণে বিএনপি সমর্থক আইনজীবীরা কর্মবিরতি আর বিক্ষোভ করে। তাদের এই কর্মবিরতির মধ্যেই সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগ ও হাইকোর্ট বিভাগের কার্যক্রম চলে।

সকালে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে আইনজীবী সমিতির সভাপতির কক্ষের সামনে গ্যাংওয়ে গেটে (সুপ্রিমকোর্টের মূল ভবনে যাওয়ার সংযোগপথ) তালা ঝুলিয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার (৩০ অক্টোবর) জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার আপিল রায়ে খালেদা জিয়ার সাজা পাঁচ বছর থেকে বাড়িয়ে ১০ বছর করেন হাইকোর্ট। আর আগের দিন জিয়া চ্যারিট্যাবল ট্রাস্ট মামলার রায়ে ঢাকার বিশেষ জজ আদালত খালেদা জিয়াকে সাত বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেন।