আন্দোলনে যাচ্ছেন নিবন্ধনধারী শিক্ষকরা

শনিবার, অক্টোবর ২৭, ২০১৮

ঢাকা: আদালতের নির্ধারিত সময়সীমা শেষ হয়ে যাওয়ার পরও নিয়োগ না পাওয়ায় এবার আন্দোলনে যাচ্ছেন শিক্ষক নিবন্ধনধারীরা। এরই অংশ হিসেবে তারা আগামী বৃহস্পতিবার মানববন্ধনের ডাক দিয়েছেন। ইতোমধ্যে প্রশাসনের কাছ থেকে অনুমতিও নিয়েছেন তারা। তারা চার দাবিতে ওই মানববন্ধনের ডাক দিয়েছেন। ওই দাবিগুলো হলো-

১. বয়সের সীমাবদ্ধতা বাতিল করে অনতিবিলম্বে রিটকারীদের প্রথম ধাপে নিয়োগের জন্য সরাসরি সুপারিশ করতে হবে।

২. ক্রমান্বয়ে পরবর্তী সকল বৈধ শিক্ষক সনদধারীকে জাতীয় মেধাতালিকা ভিত্তিক প্যানেল করে নিয়োগের জন্য সুপারিশ করতে হবে।

৩. যতদিন পর্যন্ত প্যানেল নিবন্ধন সনদধারী নিয়োগের সুপারিশ পাওয়া বাকি থাকবে ততদিন পর্যন্ত ১৫তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা স্থগিত রাখতে হবে।

৪. ৬০ হাজার জাল সনদধারীদের বাতিল করে বৈধ সনদধারীদের নিয়োগ দিতে হবে।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ১৪ ডিসেম্বর আদালত নিবন্ধন সনদধারীদের নিয়োগের সুপারিশ করতে এনটিআরসিএ’কে নির্দেশ প্রদান করে। রায় অনুসারে প্রতিষ্ঠানটি জাতীয় সমন্বিত মেধাতালিকা প্রকাশ এবং মাসাধিক সময় নিয়ে ই-রিকুইজিশন সমাপ্ত করলেও সুপারিশের ব্যাপারে কোন পদক্ষেপ নিতে পারেনি। ফলে ক্ষোভ বাড়ছে নিবন্ধনধারীদের।

নতুন নীতিমালা অনুযায়ী, পয়ত্রিশোর্ধ সনদধারীরা নিয়োগের জন্য যোগ্য বিবেচিত হবে না। তাই ৩৫ বা তদুর্ধ বয়সি শিক্ষক নিবন্ধিতরাও আবারও হাইকোর্টে রিট দাখিল করছেন বলেও জানা গেছে।