দেবীগঞ্জে চুরির অভিযোগে গণপিটুনিতে যুবকের মৃত্যু

মঙ্গলবার, অক্টোবর ২৩, ২০১৮

ডিজার হোসেন বাদশা, পঞ্চগড় প্রতিনিধি : পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে গরু চুরির অভিযোগে মঞ্জুরুল ইসলাম (২৮) নামে এক যুবক গণপিটুনিতে নিহত হয়েছে। সোমবার গভীর রাতে দেবীগঞ্জ উপজেলার দেবীডুবা ইউনিয়নের সোনাপাতা গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে। নিহত মঞ্জুরুল ইসলাম দিনাজপুর জেলার খানসামা উপজেলার গোয়ালদিঘী গ্রামের আজিজুল ইসলামের ছেলে। মঙ্গলবার সকালে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায় পুলিশ।

এ ঘটনায় থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। জানা যায়, দেবীডুবা ইউনিয়নের সোনাপাতা গ্রামে অব্যাহত গরু চুরি ঠেকাতে কয়েক দিন ধরে রাত জেগে পাহারা দিচ্ছিলেন গ্রামরে কৃষকরা। ওই গ্রামের একই বাড়িতে একাধিকবার গরু চুরির ঘটনা ঘটে।

সোমবার গভীর রাতে মঞ্জুরুল ইসলাম নামে ওই যুবক সোনাপাতা গ্রামে আব্দুল বাছেদ ওরফে বাচ্চু এর বাড়িতে গরু চুরি করতে যায়। গরু নিয়ে বাইরে বের হওয়ার সময় বাড়ির লোকজন টের পেয়ে চিৎকার করলে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসেন। এক পর্যায়ে স্থানীয় সোনাপাতা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কাছে মঞ্জুরুল ইসলামকে ধরে ফেলেন বিক্ষুব্ধ গস্খামবাসী। বিক্ষুব্ধ লোকজন সেখানেই তাকে বেধরক মারপিট শুরু করেন।

অবস্থা বেগতিক দেখে স্থানীয় ইউপি সদস্য হারুন অর রশিদ উপস্থিত লোকজনের সহায়তায় দ্রুত তাকে দেবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। মঙ্গলবার সকালে নিহতের সুরতহাল শেষে পুলিশ ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠায়।

দেবীগঞ্জ থানা পুলিশের ওসি (তদন্ত) মো. শাহ আলম গণপিটুনিতে ওই যুবক নিহতের তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, ‘নিহতের পরিবারের লোকজনের উপস্থিতিতে লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের বাবা আজিজুল ইসলাম বাদি হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। মামলায় ওই গ্রামের অজ্ঞতনামা ৩০০ থেকে ৪০০ জনকে আসামী করা হয়েছে।