ছয় বছর পর অভিযোগ স্বীকার!

বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১৮, ২০১৮

স্পোর্টস ডেস্ক : ২০১২ সালে স্পট ফিক্সিংয়ের অভিযোগে পাকিস্তানের লেগস্পিনার দানিশ কানেরিয়াকে আজিবন নিষিদ্ধ ঘোষণা করে ইংলিশ ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)। দীর্ঘ ছয় বছর সেই অভিযোগ স্বীকার করে নিলেন এ লেগস্পিনার।

তিনি স্বীকার করেছেন সেসময় ফিক্সিংয়ে নিজের সম্পৃক্ততার কথা।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরাকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে কানেরিয়া বলেন, ‘আমার নাম দানিশ কানেরিয়া এবং আমি স্বজ্ঞানে এটি স্বীকার করছি যে ২০১২ সালে আমার ওপরে ইংলিশ ক্রিকেট বোর্ডের আনা অভিযোগটি সত্য ছিল। এই দায় স্বীকার করতে আমার অনেক সাহস জমাতে হয়েছে। কারণ কেউই মিথ্যে নিয়ে জীবন অতিবাহিত করতে পারে না।’

সেসময় কানেরিয়ার এসেক্স সতীর্থ ২৩ বছর বয়সী মারভিন ওয়েস্টফিল্ড ইসিবির কাছে স্বীকার করেছিলেন যে ২০০৯ সালে ডারহামের বিপক্ষে একটি ম্যাচে নির্দিষ্ট ওভারে নির্দিষ্ট সংখ্যক রান দেয়ার শর্তে ৬০০০ পাউন্ড গ্রহণ করেছিলেন তিনি। এ ঘটনায় কারাদন্ড পর্যন্ত হয়েছিল ওয়েস্টফিল্ডের। একই ঘটনায় জেরা করা হয়েছিল কানেরিয়াকেও। তবে যথাযথ প্রমাণ না থাকায় সে দফায় পার পেয়ে যান কানেরিয়া। তবে তখন থেকেই আইসিসির নজরদারিতে ছিলেন এ লেগস্পিনার।

উল্লেখ্য, কানেরিয়া এখন পর্যন্ত পাকিস্তানের সেরা স্পিনার। তার কেরিয়ারে ২০০০ থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত পাকিস্তানের হয়ে ৬১টি টেস্ট খেলেছেন। মাত্র ৩৪.৭৯ গড়ে তার ঝুলিতে রয়েছে ২৬১টি উইকেট।