মহিলারা মুখ খুলছে দেখে ভালো লাগছে: বিপাশা

শনিবার, অক্টোবর ১৩, ২০১৮

বিনোদন ডেস্ক : বলিউড অভিনেত্রীরা টুইট করে সাজিদ খানের সঙ্গে তাদের অভিজ্ঞতা ভাগ করে নেওয়ায় খুশি হয়েছেন বিপাশা বসু। সিনেমার সেটে বিভিন্ন মহিলা কাস্ট ও ক্রিউ মেম্বারদের সঙ্গে সাজিদের আচরণ তাকে অস্বস্তিতে ফেলেছে বলেও জানান তিনি। এক টুইট বার্তায় বিপাশা এসব কথা জানান।

সাজিদ খানের বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত তিনজন মহিলা যৌন হেনস্থার অভিযোগ করেছেন- অভিনেত্রী র‌্যাচেল হোয়াইট (উংলির অভিনেত্রী), সালোনি চোপড়া (টিভি সিরিজ স্ক্রিউড আপের অভিনেত্রী), সাংবাদিক করিশ্মা উপাধ্যায়একটর। ২০১৪ সালের হামশকল ছবিতে সাজিদ খানের সঙ্গে কাজ করেছিলেন বিপাশা বসু। তিনি জানান, সাজিদ খান তার সঙ্গে খারাপ আচরণ না করলেও মহিলাদের সঙ্গে সর্বদা তার রূঢ় আচরণ বিপাশার চোখে পড়েছে।

এ প্রসঙ্গে এক টুইট বার্তায় বিপাশা জানান, “আমার সত্যিই দারুণ লাগছে মহিলাদের এই সব জঘন্য পুরুষদের বিরুদ্ধে মুখ খুলতে দেখে। তবে আমার সঙ্গে এইসব কিছুই হয়নি। সেটে মহিলাদের প্রতি তার আচরণ অত্যন্ত রূঢ়, যা আমাকে বিব্রত করতো। তিনি নোংরা জোকস বলতেন সকলের সামনেই এবং সব মহিলার সঙ্গেই খারাপ ব্যবহার করতেন”।

অপর এক টুইটে বিপাশা বলেন, “আমাকে সবাই বলেছিল তাকে কিছু না বলতে তাই আমি নিজের কাজ একজন প্রফেশনালের মতোই তাড়াতাড়ি শেষ করে প্রোডিউসারদের জানিয়েছিলাম আমি এই ছবির সঙ্গে নিজেকে আর যুক্ত রাখতে পারবো না, কারণ তাহলে যে কোনো সময় আমি হয়তো মেজাজ হারিয়ে ফেলবো”।

২০১৪ সালে হামশকল ছবির সময় বিপাশা ও সাজিদ খানের মধ্যে একটা বাগবিতণ্ডা সৃষ্টি হয়েছিল এবং বিপাশা ছবিটা প্রোমোট না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। ববিপাশা বসু ছাড়াও ওই ছবিতে সইফ আলী খান, রিতেশ দেশমুখ, রাম কাপুর, ইশা গুপ্তা ও তামান্না ভাটিয়া অভিনয় করেছিলেন।

এদিকে তনুশ্রী দত্তের প্রশংসাও করেন বিপাশা। কেননা তিনি অভিনেতা নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ করে ভারতে ‘#MeToo’ আন্দোলন শুরু করেছেন। এক টুইটে বিপাশা লেখেন, “তনুশ্রী দত্তকে কুর্নিশ। তার জন্যই আজ বহু মহিলা সে সব পুরুষদের বিরুদ্ধে মুখ খোলার সাহস পেয়েছে যারা নিজেদের ক্ষমতা ও খ্যাতিকে কাজে লাগিয়ে মহিলাদের সুযোগ নিয়েছে”।

অন্যদিকে অক্ষয় কুমার ‘হাউজফুল ৪’-এ অভিনয় না করার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর সাজিদ খান পরিচালকের ভূমিকা ত্যাগ করেছেন। ছবির একাধিক অভিনেতা ও পরিচালকের বিরুদ্ধে ‘#MeToo’ অভিযোগ ওঠার পর অক্ষয় কুমার ছবিতে অভিনয় না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। নানা পাটেকরও এই ছবির অংশ। টুইট করে অক্ষয় কুমারের ‘হাউজফুল ৪’-এর সহ অভিনেতা তার সিদ্ধান্তকে সমর্থন করেছেন। সাজিদ খানের কাজিন ফারহান আখতার টুইট করে জানিয়েছেন তিনি শক পেয়েছেন এবং বিরক্ত হয়েছেন। এদিকে পরিচালকের বোন ফারহা খান যিনি এই ছবির প্রযোজক, টুইট করে লিখেছেন, “সত্যিই খুব দুর্ভাগ্যজনক।”

সাজিদ খান ও নানা পাটেকর ছাড়াও সুভাষ ঘাই, অলোক নাথ, রজত কাপুর, কৈলাশ খের ইত্যাদি ইন্ডাস্ট্রির অন্যান্য তারকার বিরুদ্ধেও যৌন হেনস্থার অভিযোগ উঠেছে। সূত্র: এনডিটিভি