আগস্টে দৈনিক ৮ লাখ ৭৪ হাজার ব্যারেল আমদানি চীনের

মঙ্গলবার, অক্টোবর ৯, ২০১৮

ইরানের ওপর নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেই ক্ষান্ত হয়নি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন। একের পর এক দেশকে ইরানের সঙ্গে বাণিজ্য সম্পর্ক স্থগিতের জন্য চাপ দিয়ে যাচ্ছে তারা। এ কারণে এরই মধ্যে কয়েকটি দেশ ইরান থেকে জ্বালানিসহ বিভিন্ন ধরনের পণ্য আমদানি বন্ধ করেছে, না হয় কমিয়ে দিয়েছে। তবে চীন এখনো ইরান থেকে জ্বালানি তেল আমদানি বন্ধ করেনি। খবর অয়েলপ্রাইসডটকম।

চীনের জেনারেল অ্যাডমিনিস্ট্রেশন অব কাস্টমসের সাম্প্রতিক প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৮ সালের আগস্টে ইরান থেকে চীনা পরিশোধন কেন্দ্রগুলো প্রতিদিন গড়ে ৮ লাখ ৭৪ হাজার ব্যারেল অপরিশোধিত জ্বালানি তেল আমদানি করেছে। সেপ্টেম্বরে চীনের বাজারে ইরানি জ্বালানি তেল আমদানির বিষয়ে এখনো প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়নি। তবে ধারণা করা হচ্ছে, গত সেপ্টেম্বরে ইরান থেকে প্রতিদিন গড়ে ৫ লাখ ৮১ হাজার ব্যারেল অপরিশোধিত জ্বালানি তেল আমদানি করেছে বেইজিং।

ইরানের রফতানিযোগ্য কনডেনসেটের অন্যতম বড় ক্রেতা দক্ষিণ কোরিয়া। ট্রাম্প প্রশাসনের চাপে দেশটি এরই মধ্যে ইরানি কনডেনসেটের চালান স্থগিত করেছে। এক্ষেত্রে ব্যতিক্রম ছিল চীন ও ভারতের আচরণ। মার্কিন নিষেধাজ্ঞার মুখেও ইরান থেকে দেশ দুটি জ্বালানি তেল আমদানি অব্যাহত রেখেছে। মূলত নিষেধাজ্ঞার মুখে থাকা তেহরানের প্রতিষ্ঠানগুলো তুলনামূলক কম দামে জ্বালানি তেল বিক্রি করছে। এর সুযোগ নিচ্ছে চীন ও ভারতের পরিশোধন কেন্দ্রগুলো।