Print
প্রচ্ছদ » শিক্ষা
Tue, 28 Jan, 2014

ঢাবিতে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া

ঢাবি : ফেসবুক স্ট্যাটাসে নারীকে নিয়ে বাজে মন্তব্য করার জেরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধূর ক্যান্টিনে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুপুরে মধুর ক্যান্টিনে কবি জসিম উদ্দিন হল শাখার সভাপতি মেহেদী হাসান রনি, ঢাবি সভাপতি মেহেদী হাসান মোল্লা ও সাধারণ সম্পাদক ওমর শরীফসহ কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বসে ফেসবুকে ইভটিজিংয়ের বিষয় নিয়ে আলোচনা করছিলেন। এসময় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও শামসুন্নাহার হলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আফরিন নুশরাত উপস্থিত হন। পরে মেহেদী নুশরাতকে উদ্দেশ্য করে বাজে মন্তব্য করলে দুজনের মধ্যে তর্কবিতর্ক হয়। এক পর্যায়ে মেহেদী নুশরাতকে মারতে উদ্যত হলে সেখানে থাকে অন্যান্য ছাত্রী নেতারাও মেহেদীকে মারার জন্য উঠে আসে।

পরে দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এসময় কেন্দ্রীয় ও ঢাবি শাখা ছাত্রলীগ নেতাদের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। এই ঘটনার পরপরই বিশ্ববিদ্যালয়ের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হাকিম চত্বরে ছাত্রীদের নিয়ে আলোচনায় বসেন।

ঢাবি সভাপতি মেহেদী হাসান মোল্লা বলেন, ফেসবুকের বিষয় নিয়ে একটু ঝামেলা হয়েছে। তবে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করা হচ্ছে বলে তিনি জানান।

উল্লেখ্য, গত শনিবার কবি জসিম উদ্দিন হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান রনি আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় গিয়ে মিল্ক ভিটা দুধ হাতে একটি ছবি ফেসবুকে পোষ্ট করেন। ছবিটিতে একজন মেয়ে বিক্রেতার ছবি উঠে আসে। বিভিন্ন জন মেয়েটি ও ছবিটি নিয়ে বিভিন্ন কটুক্তি করে। এর প্রতিবাদ জানায় শামসুন্নাহার হলের সাধারণ সম্পাদক আফরিন নুশরাত। পরে তাকে নিয়েও কটুক্তি করা হয়।