Print
প্রচ্ছদ » লাইফ স্টাইল
Tue, 28 Jan, 2014

শারীরিক ভাষায় প্রেমের লক্ষণ

ঢাকা : পাখি, মৌমাছি, বানর থেকে শুরু করে প্রকৃতির প্রত্যেকটি জীবই বিপরীত লিঙ্গকে আকর্ষণ করার জন্য কিছু না কিছু করেই। সরাসরি ভালোবাসার কথা না জানিয়ে শুধুমাত্র শারীরিক ভাষা দিয়েই নিজের মনের কথা বুঝিয়ে দেওয়া সম্ভব। উল্টোভাবে চিন্তা করলে ব্যাপারটি এমন দাঁড়ায় যে, কেউ আপনার প্রেমে পড়েছে কি না তা তার শারীরিক ভাষার মাধ্যমেই বোঝা যায়। ছেলেদের শারীরিক ভাষার যে ১৭টি লক্ষণ থেকে বোঝা যায় যে- ছেলেটি একটি মেয়ের প্রতি বিশেষভাবে দুর্বল সেগুলো জেনে নিন-


চোখাচোখি


প্রেমের পুরো ব্যপারটাই শুরু হয় চোখ থেকে। যখন কোনো ছেলে আপনার প্রেমে পড়বে সে তখন বারবারই আপনার চোখের সাথে চোখ মেলানেরা চেষ্টা করবে। চোখ মেলানোর মাধ্যমে ছেলেটি এই বার্তাই আপনাকে পৌঁছে দেবে যে, সে আপনার ব্যাপারে আগ্রহী। এ ছাড়া কোনো বন্ধু বা সহকর্মীর সাথে কথা বলার সময় দেখা যাবে ছেলেটি বারবারই আপনার দিকে তাকাবে। আর এসব কারণেই চোখাচোখির এ ব্যাপারটিকে প্রেমের অন্যতম শারীরিক লক্ষণ বলে মনে করা হয়।


মনোযোগ আকর্ষণের চেষ্টা


এটা খুব সাধারণ একটা বিষয় যে, কাউকে পছন্দ করলে আপনি এটাই চাইবেন যে তার মনোযোগটা আপনার দিকে থাকুক। আর এ কারণেই কোনো ছেলে আপনাকে পছন্দ করলে, সে আপনার মনোযোগ আকর্ষণের জন্য বিভিন্ন কাজ করার চেষ্টা করবে। মনোযোগ আকর্ষণের এই চেষ্টায় সে হয়তো ভিড় থেকে একটু আলাদা থাকার চেষ্টা করবে, শুধুই আপনার নজরে পড়ার জন্য খুব সুন্দর একটি পোশাক পরবে।


বন্ধুমহলে নায়ক হওয়ার প্রবণতা


কোনো ছেলে যদি আপনার উপস্থিতিতে তার বন্ধুকে কোনো কিছুতে হারিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে অর্থাৎ ওই ছেলেটির বন্ধুমহলে সেই সেরা এমন একটি ভাব দেখানোর চেষ্টা করে তবে বুঝবেন ছেলেটি আপনার সামনে নায়ক হওয়ার চেষ্টা করছে। এ ছাড়াও ছেলেটি বেশ বুক ফুলিয়ে হাঁটা-চলার চেষ্টা করবে।


চেহারায় বিস্ময়ের ভাব


চেহারায় এ বিস্ময়ের ভাবটাকে প্রেমে পড়ার অন্যতম একটা শারীরিক লক্ষণ বলে মনে করা হয়। পছন্দের মেয়েটির সাথে কথা বলার সময় প্রায়ই দেখা যায় ছেলেদের ভ্রু একটু বাঁকা হয়ে যেতে। ভ্রু বাঁকা হওয়ার মাধ্যমে ছেলেদের চেহারায় এ সময় যে বিস্ময়ের ভাবটা ফুটে ওঠে তার অর্থ এই নয় যে, সে মেয়েটির বুদ্ধিমত্তা নিয়ে সন্দিহান। বরং এর অর্থ হলো- সে মেয়েটির প্রেমে পাগলপ্রায়।


ব্যক্তিগত বিষয়ে আগ্রহ


কোনো ছেলে যখন আপনাকে পছন্দ করবে তখন সে আপনার ব্যক্তিগত বিষয়গুলোতে ধীরে ধীরে বেশি আগ্রহ দেখাতে শুরু করবে। এ ছাড়া আপনার সাথে ছেলেটির যে কথা হবে তার প্রত্যেকটি শব্দের দিকে সে বিশেষ নজর দেবে।


কণ্ঠস্বরে পরিবর্তন


একটি ছেলে যখন তার পছন্দের মেয়ের সাথে কথা বলে তখন তার কণ্ঠস্বরেও কিছুটা পরিবর্তন পরিলক্ষিত হয়। এ স্বরটি অনেক বেশি ব্যক্তিগত ধরনের এবং আন্তরিক। আর এটি শুধু তার পছন্দের মেয়েটির জন্যই বরাদ্দ থাকে।


পরিপাটি ভাব


কোনো ছেলের শারীরিক ভাষার যেসব লক্ষণ দেখে এটা বুঝবেন যে ছেলেটি আপনার প্রেমে পড়েছে তার অন্যতম একটি হলো তার পরিপাটি ভাব। ছেলেটি বারবার তার জিন্স-টি শার্ট ঠিক করবে, চুল এলোমেলো হয়ে গেল কি না তা দেখবে। এসব দেখে খুব সহজেই আপনার প্রতি ছেলেটির বিশেষ আগ্রহ সম্পর্ক ধারণা পাওয়া সম্ভব।


মুখোমুখি হওয়ার প্রবণতা


কোনো ছেলে যখন তার পছন্দের মেয়ের সাথে বসে কথা বলবে তখন সে পুরোপুরি মেয়েটির মুখোমুখি বসার চেষ্টা করবে। অন্যভাবে বলা যায়- এর দ্বারা ছেলেটি মেয়েটিকে এটি বোঝানোর চেষ্টা করবে যে তার অন্য কারো দিকে তাকানোর সময়ই নেই।


গল্পের ছলে মাথা কাত করা


গবেষকরা বলছেন, কোনো ছেলে যখন একটি মেয়ের প্রেমে পড়ে তখন সে ওই মেয়েটির সাথে কথা বলার সময় বারবার নিজের মাথা একদিকে কাত করে। ছেলেটি যদি একটু লাজুক প্রকৃতিরও হয় তবু তার মধ্যে এই বৈশিষ্ট্য লক্ষ্য করা যায়।


স্পর্শ


একটি ছেলে যদি একটি মেয়ের ব্যপারে বিশেষভাবে আগ্রহী হয়ে ওঠে তখন সে বিভিন্ন ছুতোয় মেয়েটিকে স্পর্শ করার চেষ্টা করে। তবে এটি কোনোভাবেই মেয়েটিকে হেনস্তা করার জন্য নয়। বরং খুব ভদ্রভাবে এ কাজটি করবে ছেলেটি। হয়তো ছেলেটি আপনার হাতটি ধরবে বা আপনার মুখের সামনে চলে আসা চুলটি সরিয়ে দেবে।


কথা বলার ধরন


আপনি যে ছেলেটিকে পছন্দ করেন ছেলেটিকে যদি আপনার সাথে কথা বলার সময় কিছুটা অস্থির দেখায় তবে তা বেশ ভালো একটা লক্ষণ। এর মানে ছেলেটা হয়তো কিছুটা বিচলিত। সাধারণত ছেলেদের সেই সব মেয়ের সাথে কথা বলার সময় বিচলিত দেখা যায় যাদের ছেলেরা পছন্দ করে। তাই ছেলেদের কথা বলার ধরন দেখেও বুঝে নেওয়া যায় ছেলেটি আপনার ওপর দুর্বল হয়ে পড়েছে কি না।


হাসি


আমরা প্রায় সবাই-ই মজার কিছু দেখে বা শুনে হাসি। কিন্তু একটি ছেলে যখন তার পছন্দের মেয়ের সাথে থাকে তখন সে স্বাভাবিকের চেয়ে অনেক সহজেই হেসে ওঠে। এর মাধ্যমে ছেলেটি আসলে আপনাকে তার দিকে নজর দেওয়ার ইঙ্গিত দেয়।


বারবার তাকোনো


আপনি যদি খেয়াল করেন যে একটি ছেলে আপনার দিকে বারবার তাকাচ্ছে এ থেকে খুব সহজেই আপনি এটা ধরে নিতে পারেন যে ছেলেটি আসলে মনে মনে আপনাকে পছন্দ করে ফেলেছে।


সব সময় কাছে থাকার চেষ্টা


ছেলেরা সাধারণত যখন কোনো মেয়ের প্রেমে পড়ে তখন যে কোনোভাবে সে মেয়েটির কাছাকাছি থাকার চেষ্টা করে। তাই আপনি যদি এমন কোনো ছেলেকে দেখেন যে সব সময়ই আপনার ধারে-কাছে ঘোরাঘুরি করে, আপনি যেখানেই যান সেখানে সেও হাজির হয় তার মানে এটা ধরে নিতে পারেন যে, ছেলেটি আপনার সাথে কথা বলার সুযোগ খুঁজছে।


সাহায্য করারা প্রবণতা


বেশিরভাগ ছেলেই মেয়েদের সাথে ভদ্র আচরণ করে। কিন্তু কোনো ছেলে যখন একটি মেয়ের প্রতি আলাদাভাবে আকর্ষণ বোধ করে তখন সে বিভিন্ন কাজে মেয়েটাকে সাহায্য করার চেষ্টা করবে। ব্যাপারটি এমন হতে পারে- ছেলেটি ভিড় থেকে আপনাকে সহজে বের হয়ে আসতে সাহায্য করবে।


সব সময় নজরে রাখা


একটি ছেলে যখন কোনো মেয়েকে পছন্দ করে তখন সে কোনোভাবেই মেয়েটির ওপর থেকে চোখ সরায় না। সেখানে অন্য মানুষ থাকা সত্ত্বেও ছেলেটি মেয়েটির দিকে তাকানোর চেষ্টা করবেই। আর সর্বক্ষণ এভাবে তাকানোর অর্থ হলো- সে অন্যান্য মেয়ে বা বন্ধুদের সাথে কথা বলার চেয়ে ঐ মেয়েটির ওপরই বেশি আগ্রহী।


ঈর্ষান্বিত হওয়া


হিংসা বা ঈর্ষা ভালো কোনো বৈশিষ্ট্য না হলেও আপনি যদি খেয়াল করেন যে- আপনি যখন কোনো ছেলের সাথে কথা বলেন তখন একটি ছেলে কিছুটা ঈর্ষান্বিত হয় তবে এটি নিঃসন্দেহে ধরে নিতে পারেন যে ছেলেটি আপনার প্রেমে পড়েছে।


উপরিউক্ত এসব বৈশিষ্ট্য যদি একটি ছেলের মধ্যে পাওয়া যায় তবে নির্দ্বিধায় এটি বলতে পারেন যে ছেলেটি আপনাকে পছন্দ করেছে এবং সে আপনাকে তার মনের কথা বোঝানোর চেষ্টা করছে।