নীতি-আদর্শ, সততাই আমাদের মূলশক্তি: নাছিম

শনিবার, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২১

ঢাকা : স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম বলেছেন, দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি নিয়ে আমাদের লড়াই চালিয়ে যেতে হবে। নীতি-আদর্শ, সততাই আমাদের মূলশক্তি।

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় রাজনৈতিক কার্যালয়ে থেকে হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলনে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

বাহাউদ্দীন নাছিম বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়নের জন্য আজকে প্রয়োজন নীতিবান মানুষের, প্রয়োজন আদর্শবান মানুষের, প্রয়োজন বিবেকবান মানুষের। আজকে প্রয়োজন সুশাসন, আজকে প্রয়োজন দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে ঘুরে দাঁড়ানোর। আমাদর শক্তি হচ্ছে আমাদের আদর্শ-নীতি। আমাদের আদর্শ হলো, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ নির্মাণ।

তিনি বলেন, আমাদের নেতা জননেত্রী শেখ হাসিনা। একজন শেখ হাসিনার জন্য আজকে বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়িয়েছে। বিশ্বে আমাদের মর্যাদা-সম্মান শেখ হাসিনা দিয়েছেন। উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয় নিয়ে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিশ্বে উন্নত বাঙালি জাতি হিসেবে আমাদের যে গর্ব রয়েছে তা একমাত্র বঙ্গবন্ধু কন্যার অক্লান্ত পরিশ্রমের জন্যই হয়েছে। জাতিসংঘের অধিবেশনে দেশের হয়ে সবচেয়ে বেশি বার বক্তব্য রেখে তিনি আবারও প্রমাণ করে দিয়েছেন বাংলাদেশের একমাত্র যোগ্য নেত্রী শেখ হাসিনা।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, আমরা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ আছি, ঐক্যবদ্ধ থাকে যেকোনো অপশক্তিকে মোকাবিলা করবো। আজকে যারা দেশের বিরুদ্ধে যড়যন্ত্র করছে, যারা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করতে চায়। যারা বাংলাদেশকে লুটেপুটে খেয়ে চায়, সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা ছড়িয়ে, সাম্প্রদায়িক অপশক্তি উত্থান ঘটিয়ে অশুভ রাজনীতিক করতে চায়, তাদের বিরুদ্ধে আমাদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।

কৃষিবিদ নাসিম বলেন, এদেশ মানুষের শক্তিতে আমাদের বলিয়ান হতে হবে। জনগণের শক্তিই হচ্ছে শেখ হাসিনার মূলশক্তি। মানুষের ভালোবাসা- আস্থাই হচ্ছে আওয়ামী লীগের শক্তি। মানুষের আস্থা-বিশ্বাস, ভালোবাসা অর্জনের জন্যই আমাদের মহান নেতা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর সাড়া জীবন লড়াই সংগ্রাম করেছেন। জনগণের প্রতি যারা আস্থা রাখতে পারে না, আর যাই হোক জনগণের সমর্থন তারা কোনো দিনও পাবে না।

নেতাকর্মীদের সর্তক করে সাবেক স্বেচ্ছাসেবক লীগের এ নেতা আরও বলেন, আজকে অনেকে বিভ্রান্ত ছড়ানোর চেষ্টা করবে। অনেকে অপপ্রচার চালাবে। কোনো অপপ্রচারে কান দেয়া যাবে না। মনে রাখবে বাংলাদেশের মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য, আমাদের মহান নেতা যে পথ দেখিয়ে গেছেন, সে পথে আমাদের হাঁটতে হবে। আমরা দেখেছি অনেকেই ছিটকে গেছে, অনেকেই হাড়িয়ে গেছে। অনেকে বিশ্বাসঘাতক হিসেবে নিজেকে প্রমাণ করেছে। কান পাতলেই আমরা শুনতে পাই এখনও জাতির পিতাকে নিয়ে বিভ্রান্তিমূলক কথা বলে। ওই সকল আদর্শহীন, ভিত্তিহীন মানুষেরা আর যাই হোক তারা আওয়ামী লীগের আদর্শের মানুষ হতে পারে না। তারা বঙ্গবন্ধুর সোনা বাংলা নির্মাণের জন্য আওয়ামী লীগ করে না, করে নিজের স্বার্থের জন্য। ঘরের শত্রু বিভীষণ, ওই বিভীষণদের আমরা মোকাবিলা করে, পরাভূত করে জাতির পিতার আদর্শ কায়েম করবো।

জাতিসংঘের সম্মাননায় ভূষিত হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়ে কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, জনগণের ভোটে বার বার বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়ে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে সব থেকে বেশি বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছেন বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা। সাধারণ পরিষদের ৭৬তম অধিবেশনে বক্তব্য রাখার মধ্যদিয়ে এ পর্যন্ত তিনি ১৭ বার বক্তব্য দিয়েছেন। একজন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ বার বক্তব্য দিয়েছেন। এ কারণে বাঙ্গালি জাতি হিসেবে আমরা গর্বিত। জাতিসংঘে ১৭ বার বাংলাদেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করায় কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্ট কমিটি থেকে প্রধানমন্ত্রীকে পুরস্কৃত করা হয়েছে। জাতিসংঘ থেকে বাংলাদেশের হয়ে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক পদকে পুরস্কৃত হয়েছেন বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা। আওয়ামী লীগের সভা নেত্রী বলেই এতো কিছু অর্জন করা সম্ভব হয়েছে। তার প্রতি বাংলাদেশের সকল মানুষের দোয়া ও ভালোবাসা আছে। বাংলাদেশ বলতে যে বঙ্গবন্ধু,শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগ, সেটা শেখ হাসিনা তার সততার দক্ষতার মাধ্যমে প্রমাণ করে দিয়েছেন।

সম্মেলনে প্রথম অধিবেশনের সভাপতিত্ব করেন হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি সৈয়দ কামরুল হাসান এবং সঞ্চালনা করবেন সাধারণ সম্পাদক ইয়াহিয়া চৌধুরী।

এসময় উপস্থিত ছিলেন হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আবু জাহির এমপি, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আলমগীর চৌধুরী, বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট মাহবুব আলী এমপি, হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ খান এমপি, অ্যাডভোকেট আলমগীর চৌধুরী, স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোবাশ্বের চৌধুরীসহ এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন সিলেট বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ এবং কাউন্সিলর ও ডেলিগেটবৃন্দ।

২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউ প্রান্তে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ, সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবু, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি কাজী মোয়াজ্জেমসহ অন্যান্যরা।

সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ এবং অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবু। এসময় উপস্থিত ছিলেন সিলেট বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ।