আদালতের রায়ে দেশে গণতন্ত্র হত্যা করা হয়েছে : শ্যামল

রবিবার, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২১

ঢাকা : আদালতের রায়ে দেশের গণতন্ত্র হত্যা করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল।

তিনি বলেছেন,’ আদালতের রায় দিয়ে দেশের স্বাধীনতা আসে নাই। কিন্তু আদালতের রায় দিয়ে দেশে গণতন্ত্র হত্যা করা হয়েছে। যারা এই গণতন্ত্র হত্যা করেছে তাদের বিচার এদেশের মাটিতে একদিন হবে ইনশাআল্লাহ।

রবিবার(১৯ সেপ্টেম্বর)জাতীয় প্রেসক্লাবে গণতন্ত্র ফোরাম আয়োজিত

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের বিরুদ্ধে সরকারদলীয় নেতাকর্মীদের সাম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন বক্তব্যের সমালোচনা করে ইকবাল হোসেন শ্যামল বলেন,’শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান বীর উত্তম খেতাব প্রাপ্ত। উনার এই খেতাব কে দিয়েছেন? স্বাধীনতার পরবর্তী সময়ে রাষ্ট্রক্ষমতায় কারা ছিল? এই সময়ে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানকে জাতির বীর উত্তম খেতাব দেওয়া হয়। তাহলে বর্তমানে এ ধরনের কথা কেন বলা হয়? যদি উনি মুক্তিযোদ্ধা না হয়ে থাকেন তাহলে ওনাকে বীর উত্তম খেতাব কেন দেওয়া হল? তাহলে ওই সময় যারা রাষ্ট্রক্ষমতায় ছিল তারা অবশ্যই একটা অবৈধ কাজ করেছে।

ওই সময় যারা রাষ্ট্র ক্ষমতায় ছিল তাদের মরণোত্তর বিচার আমরা দাবি করি।

শ্যামল বলেন,’আজ সারা দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে সন্ত্রাসের রাম রাজত্ব চলছে।আজ আমাদের বোনেরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিরাপদ নয়। কারণ সেখানে বদরুললীগ আছে। এই বদরুল লীগের অস্তিত্বের কারণে আমাদের বোনদের শ্লীলতাহানি হয়।এমন নৈরাজ্যকর পরিস্থিতিতেও ছাত্রদল সংগ্রাম করে যাচ্ছে, করে যাবে এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনবে।

তিনি বলেন, আমরা যারা জাতীয়তাবাদে বিশ্বাস করি তাদের দিন শুরু হয় কোর্টের বারান্দায় হাজিরা দিয়ে। এ সরকার এক বা একাধিক মামলা দিয়ে আমাদেরকে হয়রানি করছে। কারণ আমরা প্রকৃত গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার আন্দোলন করছি।

ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক বলেন,’আমাদের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে পিছনে ফিরে যাওয়ার জায়গা নেই। আমরা মরতে শিখেছি। আমাদের মারার কিছু নাই। আমাদের বহু ভাই এই ভূলুণ্ঠিত গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার আন্দোলন করতে গিয়ে গুম হয়েছে। রাষ্ট্রীয় নির্যাতনে শহীদ হয়েছে। সেই ভাইদের আত্মত্যাগকে আমরা বৃথা যেতে দিতে পারি না। আমাদের নেতা তারেক রহমান আগামী দিনে যে আন্দোলনের ডাক দিবেন ভোটাধিকার ফিরিয়ে আনার,গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার যে কর্মসূচি ঘোষণা করবেন সেখানে আমরা আমাদের সর্বোচ্চ ত্যাগ দিয়ে উপস্থিত থাকব ইনশাআল্লাহ।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি খলিলুর রহমান ইব্রাহিমের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন সিরাজীর সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ,সাবেক সাংসদ মাসুদ অরুন, মৎসজীবি দলের সদস্য সচিব আব্দুর রহিম,ওলামাদলের আহ্বায়ক মাওলানা শাহ মো:নেছারুল হক, ছাত্রদলের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক তবিবুর রহমান সাগর প্রমুখ বক্তব্য দেন।