গত বছর বার্সার লোকসান ৪ হাজার ৮৩২ কোটি টাকা

শনিবার, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২১

স্পোর্টস ডেস্ক: গত মৌসুম, অর্থাৎ ২০২০-২১ অর্থবছরে ৪৮ কোটি ১০ লাখ ইউরো লোকসান গুনেছে বার্সা। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা প্রায় ৪ হাজার ৮৩২ কোটি টাকা। বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) ক্যাম্প ন্যুতে ক্লাবটির পরিচালনা পর্ষদের এক বৈঠকে এ তথ্য জানা গেছে।

বৈঠকে চলতি মৌসুমের জন্য বাজেটের অঙ্কও প্রকাশ করেছে বার্সা। ২০২১-২২ মৌসুমে ক্লাবটির বাজেট ৭৬ কোটি ৫০ লাখ ইউরো। বাংলাদেশি মুদ্রায় ৭ হাজার ৬৮৬ কোটি টাকা।

ক্লাবের বর্তমান আর্থিক অবস্থা কেমন, তা নিয়ে আগামী ৬ অক্টোবর সংবাদ সম্মেলনে বিশদ জানাবেন বার্সার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফেরান রেভেরতের।

হোয়ান লাপোর্তা বার্সা সভাপতি হয়ে আসার পর থেকেই ক্লাবটির দেনা যতটা সম্ভব নিয়ন্ত্রণে রাখার চেষ্টা করছেন, এমন কথা জানিয়ে স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম এএস লিখেছে, লাপোর্তার এই চেষ্টায় কতটুকু অগ্রগতি হলো, সেটাও জানা যাবে ৬ অক্টোবর।

বার্সার বিবৃতিতে বলা হয়, ‘বোর্ডের পরিচালনা পর্ষদ ২০২০-২১ অর্থবছরে ৪৮ কোটি ১০ লাখ ইউরো লোকসানের তথ্য অনুমোদন করেছে। ২০২১-২২ মৌসুমে ৭৬ কোটি ৫০ লাখ ইউরো বাজেট অনুমোদন করেছে পরিচালনা পর্ষদ।’

গত আগস্টে স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম জানিয়েছিল, জোসেপ মারিয়া বার্তোমেউর অধীন বার্সার আগের বোর্ডের প্রশাসনিক দুর্বলতা ও দলের প্রয়োজন না বুঝে বেশি বেতন আর একের পর এক চড়া দলবদল ফিতে তারকা খেলোয়াড় কেনা বার্সাকে আগে থেকেই ক্ষতির মুখে ফেলেছে। এর মধ্যে করোনা মহামারি এসে পরিস্থিতি আরও জটিল করে দিয়েছে।

এসব জটিলতার কারণেই বার্সা শেষ পর্যন্ত লিওনেল মেসিকে ধরে রাখতে পারেনি। কারণ, লা লিগার বেঁধে দেওয়া বেতনকাঠামো নীতির সঙ্গে খাপ খাইয়ে মেসির চুক্তি নবায়ন সম্ভব ছিল না বার্সার পক্ষে।

স্প্যানিশ লিগে ক্লাবের বেতনের বিল হতে পারে আয়ের ৭০ ভাগ পর্যন্ত, কিন্তু মেসির চুক্তি নবায়ন করলে বার্সার বেতনের বিল হতো ক্লাবের আয়ের ১১০ ভাগ! মেসিকে যেতে দেওয়ার পরও ক্লাবের বেতনের বিল মোট আয়ের ৯৫ ভাগ হয়েছে বলে গত আগস্টে মেসির বিদায় ঘোষণার সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছিলেন লাপোর্তা।

সে কারণে এই মৌসুমে দলে আসা মেম্ফিস, গার্সিয়া, আগুয়েরোদের ক্লাবে নিবন্ধনও করাতে পারছিল না বার্সা।

এরপর দলের প্রয়োজনের বাইরের খেলোয়াড়দের বিক্রির চেষ্টা তো করেছেই- কয়েকজনকে বিক্রি করতেও

পেরেছে, পাশাপাশি পিকে-বুসকেতস-কুতিনিওসহ উঁচু বেতনভোগী প্রায় সব খেলোয়াড়ের বেতন কমিয়ে নতুন করে চুক্তি সাজিয়ে নিয়েছে বার্সা। এরপরই মেম্ফিস-আগুয়েরোদের নিবন্ধন সম্ভব হয়েছে।