তিন দেশের চুক্তি চরম দায়িত্বজ্ঞানহীনতা: চীন

শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২১

নিউজ ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও অস্ট্রেলিয়ার বিশেষ নিরাপত্তা চুক্তি স্বাক্ষরের কঠোর সমালোচনা করেছে চীন। বেইজিং এই চুক্তিকে চরম দায়িত্বজ্ঞানহীনতা এবং সংকীর্ণমনস্কতার পরিচয় বলে অভিহিত করেছে।

ওই চুক্তির আওতায় অস্ট্রেলিয়াকে প্রথমবারের মতো পারমাণবিক ক্ষমতাসম্পন্ন সাবমেরিন তৈরির প্রযুক্তি দেবে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য। মূলত বিরোধপূর্ণ দক্ষিণ চীন সমুদ্রে বেইজিংয়ের প্রভাব খর্ব করতেই এই চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান বলেছেন, ওই জোটটি আঞ্চলিক শান্তির মারাত্মক ক্ষতি সাধন করবে এবং অস্ত্র প্রতিযোগিতা জোরালো করে তুলবে।

তিনি এই চুক্তিকে অচল স্নায়ু যুদ্ধের মানসিকতা বলে অভিহিত করে বলেন তিনটি দেশই নিজেদের স্বার্থের ক্ষতি করলো।

চুক্তিটির সমালোচনা করে একই ধরনের সম্পাদকীয় প্রকাশ করেছে চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদপত্র। গ্লোবাল টাইমস বলেছেন অস্ট্রেলিয়া এখন চীনের শত্রুদের সঙ্গে মিলিত হয়েছে।

গত ৬০ বছরের মধ্যে প্রথমবারের মতো নিজেদের সাবমেরিন প্রযুক্তি অন্যদের দিতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। এর আগে কেবল যুক্তরাজ্যকেই এই প্রযুক্তি দেয় তারা। এই প্রযুক্তি পাওয়ার মাধ্যমে অস্ট্রেলিয়া পারমাণবিক শক্তি চালিত সাবমেরিন তৈরি করতে পারবে যা প্রচলিত সাবমেরিনের চেয়ে বেশি দ্রুত গতিতে চলতে সক্ষম এবং শনাক্ত করা কঠিন।

নতুন সাবমেরিন কয়েক মাস পর্যন্ত পানিতে ডুবে থাকতে পারবে আর বেশি দূরত্বে ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়তে পারবে। তবে অস্ট্রেলিয়ার দাবি সাবমেরিনে অস্ত্র মোতায়েনের কোনও ইচ্ছা তাদের নেই।