মিডিয়ার কোনো মেয়েকে আর বিয়ে করবো না, বললেন মাহির প্রাক্তন স্বামী

সোমবার, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০২১

বিনোদন ডেস্ক : প্রথম স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদের মাসখানেক পরেই ফের বিয়ে করেছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। রাকিব সরকার নামের গাজীপুরের এক রাজনীতিক ও ব্যবসায়ীকে বিয়ে করেছেন তিনি।

নিজের বিয়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে মাহি জানিয়েছেন, আজ ১৩/০৯/২১ ইং ১২.০৫ মি. আমাদের বিবাহ সম্পন্ন হলো। সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন এটাই একমাত্র চাওয়া।

এদিকে প্রথম স্বামীর সঙ্গে ডিভোর্সের পর ফেসবুকে বিভিন্ন সময় পারভেজ মাহমুদ অপুকে নিয়ে আবেগঘন স্ট্যাটাস দিতেন মাহি। প্রাক্তন স্বামীকে মিস করছেন এসবও তুলে ধরতেন তার সোশ্যাল মিডিয়ায় বিভিন্ন পোস্টের মাধ্যমে।

মাহির দ্বিতীয় বিয়ের খবরের পর প্রাক্তন সঙ্গীকে নতুন দাম্পত্য জীবনের জন্য শুভকামনা জানিয়েছেন অপু। মাহির প্রাক্তন স্বামী বলেন, ‘বিয়ের খবর শুনেছি আগেই। আজ ফেসবুকে দেখতে পেলাম। আমার অভিনন্দনটা জানিয়ে দিবেন। মাহি নতুন সংসার শুরু করেছে জেনে খুবই ভালো লাগছে। তার নতুন জীবনের জন্য শুভকামনা। আমার চাওয়া, তারা সবসময় ভালো থাকুক।’

প্রাক্তন স্ত্রীকে অভিনন্দন জানালেও ক্ষোভের জায়গাটাও লুকাতে পারলেন না অপু। সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আর কখনো মিডিয়ার মেয়েকে বিয়ে করবেন না তিনি। অপুর ধারণা, মিডিয়ার মেয়েরা আর অন্য সব মেয়েদের মতো নয়। একটু

জটিল। তিনি গণমাধ্যমে বলেন, ‘আর কখনো মিডিয়ার মেয়ে বিয়ে করবো না। বাবা-মায়ের পছন্দে বিয়ে করবো।’ তিনি বলেন, ‘আমার পরিবারের মান সম্মান অনেক বড়। এ ব্যাপারে আমি আর কথা বলতে আগ্রহী নই। তার জন্য আমার অনেক অনেক দোয়া ও শুভকামনা। আমি খুব সাধারণ মানুষ। সাধারণভাবেই জীবন-যাপন করতে চাই।’

মাহির বর্তমান স্বামীকে আগে থেকেই চিনতেন জানিয়ে অপু বলেন, ‘আমি রাকিবকে আগে থেকেই চিনি। মাহি আমার সাথে তার বন্ধু হিসেবে পরিচয় করিয়ে দিয়েছে। আমরা বিভিন্ন সময় একসাথে ঘুরেছি। আমি মনে করি সে আমার থেকে অনেক ভালো ছেলেকে বিয়ে করেছে। বিয়ের বিষয়টিও আগেই শুনেছি। রাকিবের প্রথম ঘরে এক ছেলে ও এক মেয়ে আছে। বর্তমানে মাহি সন্তানদের নিয়ে একসাথেই থাকছেন। আমি সবসময় তাদের জন্য দোয়া করি।’

২০১৬ সালে সিলেটের ব্যবসায়ী পারভেজ মাহমুদ অপুকে ভালোবেসে বিয়ে করেন মাহিয়া মাহি। বিয়ের এক বছর না যেতেই তাদের বিচ্ছেদের গুঞ্জন উঠে। সর্বশেষ সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে গত মে মাসে অপুর সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদের ঘোষণা দেন মাহি।