ধর্ষণের শিকার নারীর ছবি-পরিচয় গণমাধ্যমে প্রকাশে নিষেধাজ্ঞা

সোমবার, মার্চ ৮, ২০২১

ঢাকা : যৌন নির্যাতনের শিকার জীবিত বা ধর্ষণের শিকার নারীর সব ধরনের ছবি ও পরিচয় গণমাধ্যমে প্রকাশের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছেন হাইকোর্ট।সোমবার (৮ মার্চ) মানবাধিকার সংগঠন ‘জাস্টিস ওয়াচ ফাউন্ডেশনে’র পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার মাহফুজুর রহমান মিলনের করা রিটের শুনানি নিয়ে বিচারপতি ফারাহ মাহবুব ও বিচারপতি এস এম মনিরুজ্জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চ রুলসহ এই আদেশ দেন।

আজ আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মাহফুজুর রহমান মিলন। তিনি বলেন- নারী শিশু নির্যাতন দমন আইনে যৌন নির্যাতন ও ধর্ষণের শিকার নারীর ছবি ও পরিচয় গণমাধ্যমে প্রকাশ না করার বিধান রয়েছে। তবে অনেকাংশে সে বিধানের বাস্তবায়ন লক্ষণীয় নয়। এমন বাস্তবতায় রিটটি করা হয়। আদালত আজ শুনানি নিয়ে রুলসহ আদেশ দেন।

গত ১৯ জানুয়ারি ধর্ষণ ও যৌন হয়রানির শিকার জীবিত বা মৃত নারী ও শিশুর ছবি-পরিচয় গণমাধ্যমে প্রকাশে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে হাইকোর্টে রিট করেন মানবাধিকার সংগঠন জাস্টিস ওয়াচ ফাউন্ডেশনের পক্ষে ব্যারিস্টার মাহফুজুর রহমান মিলন। পাশাপাশি এ ধরনের ছবি প্রকাশে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ারও নির্দেশনা চাওয়া হয়।

রিট আবেদনে বলা হয়েছে, আইনি বাধা থাকলেও হরহামেশাই বিভিন্ন গণমাধ্যমে ধর্ষণের শিকার নারী বা শিশুর ছবি প্রকাশ করা হচ্ছে। এতে তাদের পরিবারের সদস্যরা সামাজিকভাবে হেয় হচ্ছেন। বিশেষ করে, সম্প্রতি কলাবাগানের ধর্ষণের শিকার হয়ে মারা যাওয়া এক শিক্ষার্থীর ছবি দেশের অধিকাংশ গণমাধ্যমে প্রকাশ করা হয়। ওই ঘটনা অনেককেই ব্যথিত করেছে।