স্ত্রীর পরকীয়ায় প্রাণ গেল স্বামীর, পুকুরে মরদেহ

শুক্রবার, মার্চ ৫, ২০২১

টাঙ্গাইল : টাঙ্গাইলের নাগরপুরে পুকুর থেকে ছবেদ আলী (৪২) নামে এক দিনমজুরের মরদেহ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। সে জেলার গোপালপুর উপজেলার রান্ধুনি পাড়া গ্রামের রমেজ আলীর ছেলে। শুক্রবার (৫ মার্চ) দুপুরে উপজেলার মামুদনগর ইউনিয়নের চারাবাগ গ্রামের পরশ আলীর পুকুর থেকে ছাবেদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নাগরপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বাহালুল খান বাহার এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ‘প্রতিদিনের ন্যায় ছবেদ আজ শুক্রবারেও ভোর সকালে কাজের উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হয়। পরে দুপুরের দিকে পরশ আলীর পুকুরে তার মরদেহ ভাসতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। ছবেদ আলীর কপালে ও মাথায় ক্ষতের চিহ্ন রয়েছে বলে পুলিশ প্রাথমিকভাবে জানিয়েছে।’

এদিকে, বিয়ের পর থেকেই ছাবেদ আলী নাগরপুরের চারাবাগ গ্রামে তার মামা শ্বশুর রাইজুদ্দিনের বাড়িতে বসবাস করে আসছিলেন। ছবেদের সংসারিক জীবনে এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। স্ত্রীর পরকীয়া প্রেমের কারণে সাংসারিক জীবনে স্ত্রীর সাথে তার বিভিন্ন বিষয়ে ঝগড়া আর তর্কক-বিতর্ক হতো বলে স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা গেছে।

এলাকাবাসীর ধারণা কেউ তাকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করে মরদেহ পুকুরে ফেলে গেছে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য জরিনা বেগম জানান, ‘ছবেদ আলী একজন দরিদ্র কৃষি শ্রমিক। আমার জানা মতে তার কোন শত্রু ছিল না। তবে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে সম্পর্কের টানাপোড়েন ছিল দীর্ঘদিনের। এটি নিছক দুর্ঘটনা নাকি পরিকল্পিত হত্যা এনিয়ে এলাকায় গুঞ্জনের ঝড় বইছে বলেও তিনি জানান।’

এ বিষয়ে নাগরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আনিসুর রহমান জানান, ‘লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করা হয়েছে। এ ঘটনায় নিহত ছবেদ আলীর ছেলে আলমগীর হোসেন থানায় অভিযোগ করেছেন। তদন্তপূর্বক পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা।’