মালয়েশিয়ায় পড়ুয়া তরুণীকে ছাদ থেকে ফেলে হত্যার অভিযোগ

শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২১

ঢাকা: রাজধানীর ধানমন্ডি এলাকায় মালয়েশিয়ার একটি বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্রীকে ছয়তলা ভবনের ছাদ থেকে ফেলে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

স্বজনরা জানিয়েছেন, এ ঘটনার জন্য ভবনের পঞ্চম তলার এক ভাড়াটিয়ার ছেলেকে সন্দেহ করছেন তারা। মেয়েটির বয়স হয়েছিল ২০ বছর।

এ বিষয়ে ধানমন্ডি থানার উপপরিদর্শক জিয়াউর রহমান বলেন, ‘আমরা ছাদ থেকে ফেলে দিয়ে হত্যার একটা অভিযোগ পেয়েছি। ভিকটিম গ্রিন লাইফ হাসপাতালে আছে। সেখানে সুরতহালের কাজ চলছে; তদন্তও চলছে। বিস্তারিত পরে জানাতে পারব।’

শিক্ষার্থীর ফুফা বলেন, ‘আমার ভাগ্নি মালয়েশিয়ায় পড়াশোনা করত। করোনার মধ্যে সে দেশে আসে। এতদিন ধরে সে বাসায় (তৃতীয় তলায়) অবস্থান করছিল। বিকেলে সে ছাদে যায়। সাড়ে ৪টার দিকে তাকে ফোন দিয়ে নিচে নামতে বলা হলে সে জানায় একটু পরে নামব।

‘সন্ধ্যায় জানতে পারি বিল্ডিংয়ের পেছন থেকে লোকজন তাকে উদ্ধার করে গ্রিন লাইফ হাসপাতালে নিয়ে গিয়েছে। ডাক্তার সেখানে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।’

আপনারা এ ঘটনায় কাউকে সন্দেহ করছেন কিনা- জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমার ভাগ্নি যে বাসায় থাকে সেই বাসার পাঁচতলায় একটি পরিবারের ছেলে আছে। ছেলেটি আমার ভাগ্নিকে ডিস্টার্ব করত। বিষয়টি তার পরিবারকে জানানো হলেও তারা গুরুত্ব দেয়নি।’

শিক্ষার্থীর ফুফা জানান, মেয়েটি রাজধানীর ভিকারুন্নেসা নুন স্কুল থেকে এইচএসসি পাসের পর উচ্চশিক্ষার্থে মালয়েশিয়ায় যান।