দিল্লিতে পুলিশের গুলিতে বিক্ষোভরত কৃষকের মৃত্যু

বুধবার, জানুয়ারি ২৭, ২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে পুলিশের গুলিতে বিক্ষোভরত এক কৃষকের মৃত্যুর অভিযোগ তুলেছে তার সঙ্গে থাকা অন্য আন্দোলনকারীরা। যদিও প্রশাসনের দাবি, আইটিও মোড়ের কাছে একটি দ্রুতগামী ট্রাক্টর উল্টে গেলে তার মৃত্যু হয়। কিন্তু এই দাবি প্রত্যাখ্যান করে ঘটনাস্থল দীনদয়াল উপাধ্যায় মার্গের কাছে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করেছেন কৃষকেরা। সম্প্রচার মাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

পুলিশের সঙ্গে দফায় দফায় সংঘর্ষ, টিয়ার গ্যাস আর মোড়ে মোড়ে বসানো কাঁটাতারের ব্যারিকেড ভেঙে দিল্লির ঐতিহাসিক রেড ফোর্টে পৌঁছে গেছে ভারতের আন্দোলনরত কৃষকেরা। ভেতরে প্রবেশের পর দুর্গের চূড়ায় উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে কৃষক আন্দোলনের পতাকা। পূর্ব ঘোষিত ট্রাক্টর র‍্যালি নিয়ে কৃষকেরা মঙ্গলবার দিল্লি অভিমুখে রওনা দিলে তাদের ঠেকাতে মরিয়া হয়ে ওঠে পুলিশ।

কৃষকদের অভিযোগ, দীন দয়াল উপাধ্যায় মার্গে ঢোকার মুখে তাদের পথ আটকায় পুলিশ। এমনকি গুলিও চালানো হয়। আর তাতেই নিহত হয় ওই কৃষক। নিহত কৃষক হলেন উত্তরাখণ্ডের বাজপুরা এলাকার নবদ্বীপ সিং হুন্দাল। ওই এলাকার অপর দুই কৃষক জানান, ২৬ বছর বয়সী হুন্দাল সম্প্রতি বিয়ে করেছেন।

উত্তরাখণ্ডের রুদ্রপুর এলাকার কৃষক আনরেজ সিং বলেন, ছেলেটির নাম নবদ্বীপ সিং। সে ট্রাক্টরটি চালাচ্ছিল… পুলিশের গুলিতে আহত হয় আর ওই জায়গাতেই মারা যায়। কৃষকেরা ওই স্থানে তার মরদেহ নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে। পরে বিকালে অবশ্য মরদেহটি সরিয়ে নেওয়ার অনুমতি দেয় কৃষকেরা।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার দিনভর কৃষক বিক্ষোভের সময় দিল্লির বিভিন্ন স্থানে টিয়ার গ্যাস, লাঠিচার্জ করেছে পুলিশ। এর মধ্যে আইটিও মোড়ে পুলিশের স্থাপন করা কাঁটাতারের ব্যারিকেড ভেঙে বিপুল সংখ্যক ট্রাক্টর নিয়ে দিল্লির ভেতরে ঢুকে পড়ে কৃষকেরা। কাছে থাকা পুলিশ সদর দফতরে বিক্ষোভরত কৃষকেরা ঢুকে পড়েন কিনা তা নিয়েও আশঙ্কা তৈরি হয়।