সব জেলায় থাকবে রেল নেটওয়ার্ক : রেলমন্ত্রী

মঙ্গলবার, জানুয়ারি ২৬, ২০২১

ঢাকা : সংসদে রেলপথ মন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন জানিয়েছেন, দেশের সব জেলাকে পর্যায়ক্রমে নেটওয়ার্কের আওতায় আনতে সরকার কাজ করছে। এ ছাড়া মন্ত্রী আরো বলেন, বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের টানা তৃতীয় মেয়াদে এখন পর্যন্ত ৮৯টি প্রকল্পের মধ্যে দশটি বাদে সবগুলো প্রকল্পের কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার জাতীয় পার্টির এমপি ব্যরিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারীর টেবিলে উত্থাপিত এক প্র্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, প্রকল্পগুলোর মধ্যে ২০১৯-২০ অর্থবছরে এডিপির অর্থায়নে ৩৬টি বিনিয়োগ প্রকল্প এবং ৩টি কারিগরিসহ ৩৯টি উন্নয়ন প্রকল্প অন্তর্ভুক্ত আছে।

রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন বলেন, বাংলাদেশ রেলওয়ে একটি সেবামূলক সংস্থা। জন-সাধারণকে স্বল্প খরচে নিরাপদ ও স্বাচ্ছন্দ্যময় পরিবহন সেবা নিশ্চিতের উদ্দেশ্যে কাজ করছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। বর্তমান সরকার রেলকে ঢেলে সাজিয়ে নাগরিক সেবা দিয়ে যাচ্ছে। দেশের সব জেলাকে পর্যায়ক্রমে রেল সংযোগের আওতায় নিয়ে আসা হবে। রেলওয়ের যাত্রীসেবার মান উন্নয়ন এবং যাত্রীদের সুবিধাদি বাড়ানো হয়েছে।

সংসদে মন্ত্রী জানান, বর্তমান সরকার ক্ষমতা গ্রহণের পর দেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ রেলপথ, ঢাকা-চট্টগ্রাম করিডোরে ডাবল লাইনে উন্নীত করার কাজ শুরু করা হয়। এর দুরত্ব ৩২১ কিলোমিটার। তার মধ্যে ১১৮ কিলোমিটার ডাবল লাইন বিদ্যমান ছিল।

তিনি আরো জানান, তিনটি প্রকল্পের আওতায় লাকসাম, চিনকিস্তানা সেকশনে ৬১ কিলোমিটার, টঙ্গী-ভৈরব বাজার সেকশনে ৬৪ কিলোমিটার এবং ভৈরব দ্বিতীয় তিতাস সেতু নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় ছয় কিলোমিটার ডাবল লাইন নির্মাণ কাজ সমাপ্তি হয়েছে। এর ফলে বর্তমানে ঢাকা-চট্টগ্রাম করিডোরের ৩২১ কিলোমিটারের মধ্যে ২৪৯ কিলোমিটার রেলপথে ডাবল লাইনে নিয়মিত ট্টেন চলছে।