ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা তরুণীর সন্তান প্রসব, অতঃপর…

সোমবার, জানুয়ারি ২৫, ২০২১

ঝালকাঠি : ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলায় বিয়ের আশ্বাসে দেখিয়ে এক তরুণীকে একাধিকবার ধর্ষণ করে মো. নাছির উদ্দীন মুন্সি। এর পর ওই তরুণী অন্তঃসত্ত্বা হন এবং ছেলেসন্তান প্রসব করেন।

এ ঘটনা চাপা দিয়ে কৌশলে শিশুটিকে অপহরণ করেন নাছির। এর পর ওই তরুণী থানায় মামলা করলে বিষয়টি জানাজানি হয়।

রোববার সন্ধ্যায় নলছিটি উপজেলার মালুহার এলাকার থেকে ওই শিশুকে উদ্ধার করা হয়েছে। ওই শিশুর নাম মো. নাজমুল (২ মাস)।

এ ঘটনায় ফাতিমা বেগম (৩৫) নামে এক নারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ফাতিমা বেগম নলছিটি উপজেলার রানাপাশা এলাকার মৃত সাহেদ আলী হাওলাদারের মেয়ে। তিনি এ মামলার দুই নম্বর আসামি।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, রাজাপুর উপজেলার বড় কৈবর্তখালী গ্রামে এক তরুণীকে বিয়ের আশ্বাসে দেখিয়ে জোরপূর্বক একাধিকবার ধর্ষণ করে একই এলাকা মৃত আবদুল জব্বার মুন্সির ছেলে মো. নাছির উদ্দীন মুন্সি (৪৫)।

ধর্ষণের পরে ওই তরুণী অন্তঃসত্ত্বা হলে নাছির ভয়ভীতি দেখিয়ে তার মুখ বন্ধ রাখে। পরে ওই তরুণী একটি ছেলেসন্তানের জন্ম দেন। তখনও নাছির তাকে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে ধর্ষণের আলামত নষ্ট করতে গত ৩০ ডিসেম্বর কৌশলে শিশুটিকে অপহরণ করেন।

অপহরণের ঘটনায় শিশুটির মা থানায় মামলা করতে চাইলে পুলিশ আদালতে যাওয়ার পরামর্শ দেন। পরে আদালতের মাধ্যমে গত ১৩ জানুয়ারি চারজনের নাম উল্লেখসহ আটজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

রাজাপুর থানার পরিদর্শক (ওসি-তদন্ত) মো. আবুল কালাম আজাদ বলেন, সোমবার সকালে গ্রেফতার নারীকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। শিশুটিকে আদালতের মাধ্যমে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।