রাশিয়ায় বিরোধী নেতার মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ, নাভালনির স্ত্রীসহ আটক ৩ সহস্রাধিক

রবিবার, জানুয়ারি ২৪, ২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : রাশিয়ার কারাবন্দি বিরোধী দলীয় নেতা আলেক্সাই নাভালনির স্ত্রী ইউলিয়া নাভালনায়াকে আটক করেছে দেশটির পুলিশ।

বিষক্রিয়ায় আক্রান্তের চিকিৎসা দেশে ফেরার পর থেকে বন্দি থাকা বিরোধী দলীয় নেতার সমর্থনে রাশিয়া জুড়ে হাজার হাজার মানুষের বিক্ষোভের মধ্যে শনিবার তার স্ত্রীকে আটক করা হয়। একই দিন আটক হয়েছেন ৩ হাজারেরও বেশি নাভালনি সমর্থক। মার্কিন সম্প্রচারমাধ্যম সিএনএন’র প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের কঠোর সমালোচক অ্যালেক্সাই নাভালনি বিষক্রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে জার্মানিতে চিকিৎসা নিয়ে গত রবিবার দেশে ফিরে বিমানবন্দরেই আটক হন। প্যারোলে হাজিরা দিতে ব্যর্থ হওয়ার একটি মামলায় তাকে ৩০ দিনের আটকাদেশ দিয়ে কারাগারে পাঠায় মস্কোর একটি আদালত। নাভালনিকে বন্দি রাখার পরিবর্তে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপক বিক্ষোভের ডাক দেয় তার সমর্থকেরা। অন্তত ৬০টি শহরে এই বিক্ষোভের ডাক দেওয়া হয়। শনিবার সকালে রাশিয়ার পূর্বাঞ্চলীয় এলাকায় প্রথম বিক্ষোভ শুরু হয়। পরে তীব্র শীত উপেক্ষা করে বিভিন্ন শহরে বিক্ষোভ চালিয়ে যায় তার হাজার হাজার সমর্থক।

শনিবার নাভালনির স্ত্রী ইউলিয়াকে আটকের একটি ভিডিও অনলাইনে ছড়িয়ে পড়েছে। তাতে দেখা গেঝে মস্কোর মধ্যাঞ্চলে একটি মেট্রো স্টেশনের প্রবেশ মুখে তাকে থামিয়ে দেয় পুলিশ। এই স্টেশনের কাছে সমবেত হয়ে বিক্ষোভ করছিলেন কয়েক হাজার নাভালনি সমর্থক। পরে নাভালনির স্ত্রীকে একটি পুলিশ ভ্যানে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়।

সবচেয়ে বড় বিক্ষোভ হয়েছে মস্কোর পাশকিন স্কয়ারে। সেখানে হাজার হাজার বিক্ষোভকারী জড়ো হয়ে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে চোর আখ্যা দিয়ে স্লোগান দেয় অনেকেই। করোনাভাইরাস মহামারির কারণে মাস্ক পরে বিক্ষোভে যোগ দেয় বহু অংশ গ্রহণকারী।

মিছিল পর্যবেক্ষণকারী বেসরকারি সংস্থা ওভিডি ইনফো জানিয়েছে, রাশিয়া জুড়ে বিক্ষোভ থেকে প্রায় এক হাজার ৩৩৮ জন নাভালনি সমর্থককে আটক করেছে পুলিশ।

রাশিয়ার বিরোধী নেতা অ্যালেক্সেই নাভালনির মুক্তির দাবিতে রাজধানী মস্কোসহ বিভিন্ন শহরের রাস্তায় নামা তিন হাজারের বেশি বিক্ষোভকারীকে আটক করেছে দেশটির পুলিশ। সংবাদ সংস্থা অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস (এপি) একথা জানিয়েছে।

ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্ট পুতিনের কড়া সমালোচক হিসেবে পরিচিত নাভালনি। মস্কোর পুশকিন স্কয়ারে গতকাল শনিবার অন্তত ১৫ হাজার মানুষ বিক্ষোভে অংশ নেন। পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ হয় বিক্ষোভকারীদের।

এ ছাড়া রাশিয়ার আরো অনেক শহরে বিক্ষোভে নামে মানুষ। এদিন বহু শহরে মাইনাস ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা ছিল। এই কনকনে শীতের মাঝেই নেতার মুক্তি দাবিতে রাস্তায় নামেন সমর্থকেরা। এতেই বোঝা যায়, রাশিয়ার রাজনৈতিক এবং সাংস্কৃতিক অঙ্গনে কতটা প্রভাবিত করতে পেরেছেন অ্যালেক্সেই নাভালনি।

নাভালনির স্ত্রী ইউলিয়াকেও শনিবার আটক করা হয়েছে।

মস্কোয় যেখানে নাভানলিকে বন্দি করে রাখা হয়েছে বিক্ষোভকারীরা সেদিকে ধাবিত হতে শুরু করলে ব্যাপকহারে ধরপাকড় করে পুলিশ।

নাভালনির দুর্নীতি বিরোধী অবস্থান তাঁকে বেশ জনপ্রিয়তা এনে দিয়েছে।

রাশিয়ায় বিষ দিয়ে হত্যাচেষ্টা থেকে বেঁচে পাঁচ মাস জার্মানিতে থাকার পর আকাশপথে গত রোববার (১৭ জানুয়ারি) দেশের মাটিতে পা রাখার সঙ্গে সঙ্গেই গ্রেপ্তার হন অ্যালেক্সেই নাভালনি।

রুশ বিরোধী এই নেতার ধারণা ছিল, দেশে ফিরলে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হতে পারে। ফলে নিজের ফ্লাইটে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের বহু সাংবাদিককে সঙ্গে নেন তিনি। বিমানবন্দরেও অভ্যর্থনা জানাতে হাজির হন তাঁর সমর্থকেরা। এসবেও শেষ রক্ষা হয়নি। তার বিমানের গতিপথ ঘুরিয়ে অন্য বিমানবন্দরে নিয়ে তাঁকে আটক করে মস্কোর পুলিশ।