টুইটারে সাময়িক নিষেধাজ্ঞা, প্রতিবাদে ফুঁসে উঠলেন কঙ্গনা

বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ২১, ২০২১

বিনোদন ডেস্ক : ফের আক্রমণাত্মক মেজাজে কঙ্গনা রানাউত। তার টুইটার অ্যাকাউন্টের উপরে সাময়িক নিষেধাজ্ঞা জারি হওয়ার ঘটনায় ক্ষোভ উগরে দিলেন বলিউডের ‘কন্ট্রোভার্সি ক্যুইন’।

তার দাবি, যে কোনও সময় তাঁর অ্যাকাউন্টটি দেশের জন্য ‘শহিদ’ হয়ে যেতে পারে। কিন্তু তাতেও পিছু হটবেন না তিনি। নিজের ছবির মাধ্যমেই তার ‘দেশভক্ত ভার্শন’ রিলোড করবেন। রীতিমতো কটাক্ষের সুরে তিনি হুঁশিয়ারিও দেন, ”তোমাদের বেঁচে থাকা দুষ্কর করে দেব।”

সম্প্রতি ওয়েব সিরিজ ‘তাণ্ডব’ নিয়ে বিতর্কিত টুইট করে ফের শিরোনামে এসেছেন কঙ্গনা। পরে বেগতিক দেখে সেই টুইট অবশ্য মুছেও দেন তিনি। কিন্তু ততক্ষণে বহু নেটিজেনই তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ জানান, বিদ্বেষ ছড়াচ্ছেন বলি তারকা। তাঁর অ্যাকাউন্ট সাময়িক ভাবে বন্ধ করে দেওয়া হোক। সেই কারণেই তাঁর অ্যাকাউন্টের উপরে সাময়িক নিষেধাজ্ঞা জারি হয়। আর তাতেই এবার মেজাজ হারালেন কঙ্গনা। তাঁর বিরোধীদের ফের ‘লিব্রু’ বলে কটাক্ষও করেন তিনি।

এখানেই শেষ নয়। পরে আরও একটি টুইট করেন তিনি। টুইটারে চলতে থাকা #SuspendKanganaRanaut ট্রেন্ড প্রসঙ্গে তাঁর অভিযোগ, এসবই ‘অ্যান্টি ন্যাশনাল’দের কাজ। তাঁর উপরে নিষেধাজ্ঞা জারি হলে ফিরে এসে তিনি তাঁর বিরোধীদের জীবন তছনছ করে দেবেন। কঙ্গনার সাফ দাবি, ভারচুয়াল জগতে তাঁকে এভাবে সমস্যায় ফেলতে পারলেও বাস্তব পৃথিবীতে তিনি অপ্রতিরোধ্য।

‘তাণ্ডব’ নিয়ে বিতর্কিত টুইটে ঠিক কী লিখেছিলেন কঙ্গনা? বিজেপি নেতা কপিল মিশ্রর একটি টুইট শেয়ার করে হিন্দিতে তিনি প্রশ্ন করেন, “বলো আলি আব্বাস জাফর, আল্লাহর উপহাস করার হিম্মত আছে?” সেই সঙ্গে আরও উসকানিমূলক কথাবার্তাও তিনি লেখেন বলে অভিযোগ। কিন্তু বরাবরের মতোই বিতর্ককে পাত্তা না দিয়ে স্বমহিমায় ফের বুধবার সকালে টুইট করে হুঁশিয়ারি দিতে দেখা গেল তাঁকে।

মুক্তির পর থেকেই সইফ আলি খান, ডিম্পল কপাডিয়া অভিনীত ওয়েব সিরিজ ‘তাণ্ডব’ নিয়ে দেশজুড়ে প্রবল বিতর্ক শুরু হয়ে যায়। অভিযোগ ওঠে হিন্দুদের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করার। চাপে পড়ে ক্ষমা স্বীকার করে নেন কলাকুশলীরা। কিন্তু তাতেও বিতর্ক না থামায় অবশেষে সিরিজের পরিচালক আলি আব্বাস জাফর টুইট করে জানিয়ে দিয়েছেন, যে দৃশ্য নিয়ে এত নিন্দা ও সমালোচনা, তা বদলে দেওয়া হবে।