ব্রেন স্ট্রোক হওয়ার আগে শরীরে যে ৬টি সিগনাল দেয়

বুধবার, জানুয়ারি ২০, ২০২১

স্বাস্থ্য ডেস্ক : হার্ট অ্যাটাকের ক্ষেত্রে যেমন শারীরিক অস্বাভাবিকতার লক্ষণ প্রকাশ করে মানুষের শরীর, তেমনই ব্রেন স্ট্রোকের ক্ষেত্রেও সিগন্যাল পাঠানো হয় শরীরের তরফে। হঠাৎ করে কোনো কারণবশত মস্তিষ্কে রক্তের সঞ্চালন কমে গেলে বা বন্ধ হয়ে গেলে মস্তিষ্কের কোষসমূহে অক্সিজেনের ঘাটতি দেখা যায়। এর ফলে মৃত্যু ঘটে কোষগুলির এবং ব্যাহত হয় স্বাভাবিক শারীরবৃত্তীয় কার্যগুলি। এই অবস্থাই চিকিৎসার পরিভাষায় ব্রেন স্ট্রোক, যার সুদূরপ্রসারী ফলাফল হিসেবে হতে পারে ব্রেন ড্যামেজ, প্যারালাইসিস, এমনকি মৃত্যুও।

ব্রেন স্ট্রোকের ঝুঁকি কমাতে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন নিজের শরীরের ও শারীরিক পরিবর্তনের খেয়াল রাখা এবং শরীরের বিভিন্ন সিগনালের খেয়াল রাখা। এগুলো খেয়াল রাখলে বড়রকম ক্ষতির হাত থেকে বাঁচা সম্ভব।

স্ট্রোক হওয়ার আগে স্ট্রোকের লক্ষণগুলো চিনতে পারলে এবং দ্রুত ডাক্তারের কাছে নিয়ে যেতে পারলে রোগীকে মারাত্মক ক্ষতির হাত থেকে বাঁচানো সম্ভব৷ জেনে নিন স্ট্রোক চেনার সাতটি লক্ষণের কথা৷

হাতে অসাড়তা:

স্ট্রোকের একটি স্পষ্ট লক্ষণ যে কোনো একটি হাতে অসাড়তা বা দুর্বলতা। এমন হতে পারে যে সেই হাত টেনে মাথার ওপর নিয়ে যাওয়া সম্ভব হচ্ছে না।

মুখের একদিকে অসাড়তা:

কথা বলতে বলতে বা হাসতে হাসতে মুখের একদিকে যদি হঠাৎ অসাড়তা দেখা যায় তবে তা স্ট্রোকের আরেকটি লক্ষণ। এর কারণ মুখের মাংসপেশিতে অক্সিজেন সরবরাহ হ্রাসজনিত কারণে ক্ষতি।

মাথাব্যথা:

কোনো কারণ ছাড়াই হঠাৎ তীব্র মাথা ব্যথা হলে বুঝতে হবে মস্তিষ্কের কার্যকারিতা ব্যাহত হচ্ছে। যা স্ট্রোকের প্রাথমিক লক্ষণ।

দৃষ্টি:

স্ট্রোকের আরেকটি প্রধান লক্ষণ চোখের দৃষ্টি ঝাপসা হয়ে আসা। মস্তিষ্কের দৃষ্টি নিয়ন্ত্রণ অঞ্চলে অক্সিজেন সরবরাহ কমে যাওয়ায় দৃষ্টি ব্যহত হয়।

প্যারালাইসিস:

স্ট্রোকের একটি উল্লেখযোগ্য লক্ষণ হল প্যারালাইসিস। শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে বা পুরো একদিকটা অসাড় হয়ে পড়লে সঙ্গে সঙ্গে সেই ব্যক্তির চিকিৎসার প্রয়োজন।

মাংসপেশিতে খিল ধরা:

হঠাৎ দেহের এক বা একাধিক জায়গায় মাংসপেশি শক্ত হয়ে খিল ধরে আসলে তা ব্রেন স্ট্রোকের লক্ষণ হতে পারে।

সুস্থ থাকতে হলে খেয়াল রাখা দরকার এইসব লক্ষণগুলি। সুস্থ থাকুন, সাবধানে থাকুন।