পৌরসভা নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় দুইজনকে আ. লীগ থেকে বহিষ্কার

মঙ্গলবার, জানুয়ারি ১৯, ২০২১

বরগুনা : বরগুনার পাথরঘাটা পৌরনির্বাচনে মেয়র পদে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ করে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় শাহ আলম মল্লিক ও মোস্তাফিজুর রহমান সোহেলকে দলীয় পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে বলে জানা গেছে। পাথরঘাটা পৌরসভার মেয়র পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর (নৌকা) বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করায় ওই দুইজনকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে।

মোস্তাফিজুর রহমান সোহেল পাথরঘাটা উপজেলা জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি এবং শাহআলম মল্লিক উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ছিলেন। আগামি ৩০ জানুয়ারি পাথরঘাটা পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে এবং সে লক্ষ্যকে সামনে রেখে সকল প্রার্থীদের প্রচার প্রচারণা অব্যাহত রয়েছে।

জানা গেছে, পাথরঘাটা পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে ৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এরা হলেন, আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আনোয়ার হোসেন আকন (নৌকা), বিএনপি মনোনীত প্রার্থী শাহাবুদ্দিন সাকু (ধানের শীষ), স্বতন্ত্র প্রার্থী মাহবুবুর রহমান খান (মোবাইল ফোন) এবং আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী মোস্তাফিজুর রহমান সোহেল (নারিকেল গাছ) ও শাহ আলম মল্লিক (জগ)।

এ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের দলীয় সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে পাথরঘাটা উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান সোহেলকে বরগুনা জেলা শ্রমিক লীগ গত শনিবার আজীবনের জন্য বহিষ্কার করেছে। বরগুনা জেলা শ্রমিক লীগের আহ্বায়ক আব্দুল হালিম মোল্লা ও সদস্য সচিব রাসেদ আহম্মেদ ১৬ জানুয়ারি স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে।

এর আগে গত ১৩ জানুয়ারি পাথরঘাটা উপজেলা আওয়ামী লীগের এক সভায় সদস্য শাহ আলম মল্লিককে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে উপজেলা আওয়ামী লীগ থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হয়।

জানতে চাইলে বিদ্রোহী প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান সোহেল বলেন, দল থেকে এখনও কোন চিঠি পাইনি। এ ব্যাপারে পাথরঘাটা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জাবির হোসেন বলেন, আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর বিরুদ্ধে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার ওই দুই প্রার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে।