কাজল কিনতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার কিশোরী, দোকানদার গ্রেফতার

বুধবার, জানুয়ারি ১৩, ২০২১

কুমিল্লা : কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে অষ্টম শ্রেণির এক কিশোরী কাজল কিনতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর বাবা মামলা করেছেন। পুলিশ অভিযুক্ত আলাউদ্দিনকে (৪৮) গ্রেফতার করেছে। তিনি জেলার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার বাতিসা ইউনিয়নের আটগ্রামের মৃত আক্কাস আলীর ছেলে।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, গত বছরের ১৮ জুলাই সকাল ১১টার দিকে জেলার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার বাতিসা ইউনিয়নের আটগ্রামে ধর্ষক আলাউদ্দিনের বসত ঘরের নিচতলায় কসমেটিকসের দোকানে কাজল কিনতে যায় ওই কিশোরী ও তার ছোট বোন। পরে আলাউদ্দিন কিশোরীর ছোট বোনকে একটি চুলের বেন্ড হাতে দিয়ে বাড়ি পাঠিয়ে দিয়ে দোকানের দরজা বন্ধ করে দেয়। পরে ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করেন। ধর্ষণ শেষে এ কথা কাউকে জানালে তাকে হত্যা করা হবে বলে ভয়ভীতিও দেখান। পরে নির্যাতিতা ওই কিশোরীর শরীরের গঠন পরিবর্তন হতে দেখে পেটে টিউমার হয়েছে ভেবে পল্লী চিকিৎসক দিয়ে চিকিৎসা চালিয়ে আসছিল কিশোরীর পরিবার।

অবস্থার পরিবর্তন না দেখে গত ১১ জানুয়ারি চৌদ্দগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে চিকিৎসক জানান, ওই কিশোরী ২৪ সপ্তাহ আগে গর্ভবতী হয়েছে। এরপর ওই কিশোরী ঘটনা খুলে বললে কিশোরীর পিতা বাদী হয়ে মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারি) রাতে থানায় ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করেন।

এ বিষয়ে থানার ওসি শুভরঞ্জন চাকমা জানান, অভিযুক্ত আলাউদ্দিনকে গ্রেফতারের পর হাজতে পাঠানো হয়েছে।